ভুল চিকিৎসকের, মাশুল ২২ ভেড়ায়

আনোয়ারায় চিকিৎসকের ভুলের মাশুল গুণতে হয়েছে এক খামারিকে। ওই চিকিৎসকের ভুলের কারণে মারা গেছে খামারি আনোয়ারের ২২টি ভেড়া। অসুস্থ হয়ে পড়েছে আরও ৮টি ভেড়া।

বুধবার (২০ অক্টোবার) দুপুরে উপজেলার বারশত ইউনিয়নের পারকি বাজারের নুরুল আনোয়ারের খামারে এ ঘটনা ঘটে।

খামারি আনোয়ারের অভিযোগ—পশু চিকিৎসক মো. হোসেন তার সহকারী মো. হাসানের মাধ্যমে কৃমিনাশক ওষুধ নাইট্রোনেক্স দেওয়ার পরই ভেড়াগুলো মারা যায়।

আরও পড়ুন: মেম্বারের ঘরে ঘুরছিল ৮ পদ্মগোখরা!

Yakub Group

নুরুল আনোয়ার জানান, বুধবার খামারের ভেড়াগুলো অসুস্থ হয়ে পড়লে বৈরাগ ইউনিয়নের পশু চিকিৎসক হোসেনের কাছে যাই। তাঁর পরামর্শে কৃমিনাশক ওষুধ নাইট্রোনেক্স আনার পর সহকারী মো. হাসানের মাধ্যমে সকাল ১০টার দিকে ৩০টি ভেড়ার শরীরে পুশ করা হয়। পুশের দুঘণ্টা পর এবং পরদিন বৃহস্পতিবার পর্যন্ত একে একে মারা যায় ২২টি ভেড়া। বাকিগুলো অসুস্থ হয়ে পড়ে।

এদিকে চিকিৎসক মো. হোসেন অভিযোগ অস্বীকার করে আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ইনজেকশনের পুশের বিষয়ে আমি কিছুই জানি না। নুরুল আনোয়ারের কথা শুনে মো. হাসান কৃমিনাশক ওষুধ ভেড়াগুলোর শরীরে পুশ করেন। আমি এ ওষুধ দেওয়ার জন্য কাউকে বলিনি।

আরও পড়ুন: লাশ নিয়ে টানাটানি—ধাত্রীর ভুলে মা ও নবজাতকের মৃত্যু

আনোয়ারা উপজেলা পশু চিকিৎসক মো. দেলোয়ার হোসেন জানান, কৃমিনাশক ওষুধ নাইট্রোনেক্স বিপদজনক। কোনো দুর্বল পশুর মধ্যে এ ওষুধ ব্যবহার করা উচিত নয়। বেশি জরুরি হলে ২৫ কেজি ওজনের পশুর মধ্যে এ ওষুধ ১ এমএল দেওয়া যেতে পারে।

যোগাযোগ করা হলে কর্ণফুলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দুলাল মাহমুদ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, পশু চিকিৎসকের ভুল চিকিৎসায় ২২টি ভেড়া মারা যাওয়ার বিষয়ে থানায় মামলার প্রস্ততি চলছে। বিষয়টি তদন্ত করে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

ইমরান/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm