লাশের ভারে কাঁদছে চট্টগ্রাম, করোনায় মৃত্যুর সর্বোচ্চ রেকর্ড

চট্টগ্রামে একদিনে সর্বোচ্চসংখ্যক করোনা রোগীর মৃত্যুর রেকর্ড ভেঙেছে। একইসঙ্গে নগর ও উপজেলা মিলে সাড়ে আটশ মৃত্যু ও ৭২ হাজার শনাক্তের চূড়া পার হয়েছে চট্টগ্রামের করোনা।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামের ২ হাজার ৫৩৭ নমুনা পরীক্ষায় ৯২৫ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে। এর মধ্যে ৫৫৩ জন নগরের এবং ৩৭২ জন বিভিন্ন উপজেলার বাসিন্দা।

একইসময়ে মারা গেছেন ১৫ জন করোনা রোগী। এরমধ্যে ৫ জন নগরের এবং ১০ জন উপজেলার বাসিন্দা।

চট্টগ্রামে এ নিয়ে মৃত্যু হয়েছে ৮৫৬ জন করোনা আক্রান্ত রোগীর। অন্যদিকে এখন পর্যন্ত চট্টগ্রামের মোট ৭২ হাজার ৫৯২ নমুনায় করোনা শনাক্ত হয়েছে।

Yakub Group

মঙ্গলবার (২০ জুলাই) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয় সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়।

সিভিল সার্জন কার্যালয় জানায়, আগের ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৮৯ নমুনা পরীক্ষায় ১৩৩ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে।

বিআইটিআইডি ল্যাবে ৬০২ নমুনা পরীক্ষায় করোনা শনাক্ত হয় ১৪৬ জনের।

চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ল্যাবে পরীক্ষা করা হয় ১৭৭ নমুনা। এতে করোনা শনাক্ত হয় ৬২ জনের।

এছাড়া চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও অ্যানিমেল সায়েন্সেস বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ২৬৯ নমুনা পরীক্ষায় ১১৩ জন, কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে চট্টগ্রামের ৮ নমুনা পরীক্ষায় ২ জন, এন্টিজেন টেস্টে ৭৩৪ নমুনা পরীক্ষায় ২৪০ জন, ইমপেরিয়াল হাসপাতাল ল্যাবে ১৫২ নমুনা পরীক্ষায় ৭২ জন, চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতাল ল্যাবে ৬১ নমুনা পরীক্ষায় ৩৩ জন, জেনারেল হাসপাতালের আরটিআরএল ল্যাবে ৫৪ নমুনা পরীক্ষায় ৩৬ জন, মেডিকেল সেন্টারে ৪০ নমুনা পরীক্ষায় ১৪ জন এবং এপিক হেলথ কেয়ারে ১৫১ নমুনা পরীক্ষায় ৭৪ জনের করোনা শনাক্ত হয়।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় চট্টগ্রামে করোনা শনাক্তদের মধ্যে লোহাগাড়ার ১৭ জন, সাতকানিয়ার ৩ জন, বাঁশখালীর ১০ জন, আনোয়ারার ২৫ জন, চন্দনাইশের ১৫ জন, পটিয়ার ২৯ জন, বোয়ালখালীর ৭ জন, রাঙ্গুনিয়ার ২৪ জন, রাউজানের ৮০ জন, ফটিকছড়ির ৪৭ জন, হাটহাজারীর ৬৮ জন, সীতাকুণ্ডের ১৭ জন, মিরসরাইয়ের ১৪ জন এবং সন্দ্বীপের বাসিন্দা রয়েছেন ১৬ জন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৮ মার্চ দেশে প্রথম করোনা শনাক্তের খবর জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

জেডএইচ

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm