লামায় ট্রিপল মার্ডার—দেশে ফিরেছেন নুর মোহাম্মদ, ৩ সংস্থার তদন্তেও খুনের মোটিভ অধরা

লামায় চাঞ্চল্যকর ট্রিপল মার্ডারের কোনো ক্লু খুঁজে পায়নি পুলিশ। রোববার (২৩ মে) সন্ধ্যায় কুয়েত থেকে দেশে ফিরেছেন স্ত্রী ও দুই সন্তান হারানো প্রবাসী নুর মোহাম্মদ। রাতেই নিহতদের মরদেহ দাফন হবে।

এদিকে নিহতের পরিবারের দাবি, টাকা ও স্বর্ণালঙ্কার লুটের জন্যই এই খুন। তবে পুলিশ, পিবিআই ও র‌্যাব- এ তিন সংস্থার তদন্তে এখনো কোনো কিছু নিশ্চিত করা হয়নি। যদিও পিবিআইয়ের পক্ষ শনিবার (২৩ মে) থেকে বলা হয়েছিল দু’-একদিনের মধ্যে খুনের কারণ বেরিয়ে আসবে।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (২১ মে) রাত সাড়ে ৯টার দিকে লামা পৌরসভার চাম্পাতলী গ্রামের কুয়েত প্রবাসী নুর মোহাম্মদের বসতঘর থেকে তার স্ত্রী ও দুই মেয়ের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। শনিবার (২২ মে) দুপুরে নিহত মাজেদা বেগমের মা লালমতি খাতুন বাদী হয়ে মামলা করে।

এরপর জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৬ জনকে আটক করে পুলিশ। আটককৃতরা হলেন- নিহত মাজেদা বেগমের স্বামী নুর মোহাম্মদের ছোট ভাই আবদুল খালেক ও শাহ আলম, নিহত মাজেদা বেগমের বড় বোন রাহেলা বেগম ও তার স্বামী আবদুর রশিদ, হাফেজ সাঈদুর রহমান এবং স্থানীয় দোকানদার রবিউল ইসলাম।

বলরাম/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm