মিরসরাইয়ে বিধিনিষেধের জালে ১৬ জন

কঠোর লকডাউনে মিরসরাইয়ে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ১৬ জনকে জরিমানা করেছে ম্যাজিস্ট্রেট।

শুক্রবার (২ জুলাই) দোকান খোলা রাখায়ে এবং মাস্ক না পরায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুবল চাকমা এ জরিমানা করেন। এ সময় তাদের ৩৮০০ টাকা অর্থদণ্ড আদায় করা হয়।

লকডাউনের দ্বিতীয় দিনেও উপজেলার বিভিন্ন মার্কেট ও দোকানপাট বন্ধ ছিল।

বিভিন্ন বাজারে সরেজমিন দেখা গেছে, সড়কে গাড়ি চলাচল কম ছিল। তবে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে রাস্তার পাশের বাজার ও মার্কেটগুলোর দোকান বন্ধ থাকলেও ভিন্ন চিত্র ছিল বড়তাকিয়া বাজার ও গ্রামের ভেতরের বাজারগুলোর। এখানকার চায়ের দোকানে লোকজনদের বসে আড্ডা দিতে দেখা গেছে।

উপজেলায় লকডাউন মনিটরিংয়ের দায়িত্বে ছিলেন চট্টগ্রামের অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) আ স ম জামশেদ খোন্দকার, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মিনহাজুর রহমানসহ আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর কর্মকর্তারা।

উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) সুবল চাকমা বলেন, লকডাউনের দ্বিতীয় দিন বারইয়ারহাট, শান্তিরহাট ও মিঠাছড়া বাজারে স্বাস্থ্যবিধি না মানায় ও মাস্ক না পরায় ১৬ জনকে ৩৮০০ টাকা জরিমানা করা হয়েছে। পাশাপাশি সবাইকে খুব বেশি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের না হতে এবং মাস্ক ব্যবহার করতে সচেতন করা হয়েছে। প্রতিদিন আমাদের মনিটরিং অব্যাহত থাকবে।

এদিকে উপজেলার আবুতোরাব বাজারে লকডাউন মনিটরিং করেছেন মঘাদিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জাহাঙ্গীর হোসাইন।

আজিজ/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm