দুই জলদস্যুর কাছে ৩ দেশি অস্ত্র

মহেশখালীর সোনাদিয়া এলাকায় ৩টি দেশীয় অস্ত্র ও গোলাবারুদসহ দুই জলদস্যুকে আটক করেছে র‍্যাব।

আটক জলদস্যুরা হলেন- কুতুবদিয়া চেইন্দারপাড়া এলাকার নাজের হোসেনের ছেলে মোহাম্মদ রাশেদ ও একই এলাকার আবু তৈয়বের ছেলে মো. মিজান।

রোববার (৮ আগস্ট) রাত সাড়ে ১১টার দিকে গভীর সমুদ্র থেকে তাদেরকে আটক করা হয়।

র‍্যাব সূত্রে জানা যায়, গত ৬ আগস্ট টেকনাফ শাপলাপুরের পশ্চিমে গভীর সমুদ্রে জলদস্যুরা ৫০ জন জেলেসহ ১৫/২০টি মাছ ধরার বোট, আহরণকৃত মাছ এবং জালসহ আটকে রাখে। এরপর তাদের পরিবারের কাছে ফোন করে মুক্তিপণ দাবি করে। জেলেদের পরিবার মুক্তিপণ দিতে ব্যর্থ হলে জলদস্যুরা তাদের মেরে ফেলার হুমকি দেয়।

এ ঘটনার প্রেক্ষিতে রোববার (৮ আগস্ট) রাতে জেলেদের উদ্ধার ও জলদস্যুদের আটক করার জন্য অভিযানে নামে র‍্যাব -১৫। জলদস্যুরা জেলেদের নিয়ে সোনাদিয়া প্যারাবনে অবস্থান করছে। এমন সংবাদের ভিত্তিতে ঐ স্থানে পৌঁছায় র‍্যাব। পরে দুই জলদস্যুকে আটক করে। তাদের কাছ থেকে ৩টি দেশীয় একনলা বন্দুকসহ ৫ রাউন্ড তাজা কার্তুজ উদ্ধার করা হয়।

এ তথ্যের সত্যতা নিশ্চিত করে কক্সবাজার র‍্যাবের সহকারী পরিচালক (মিডিয়া অফিসার) আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী। তিনি বলেন, আটককৃত জলদস্যুদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে। পলাতক জলদস্যুদের গ্রেপ্তারে চেষ্টা চলছে।

মহেশখালী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. আব্দুল হাই বলেন, আটককৃতদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি চলছে। এছাড়া ৮ আগস্টও তিন জলদস্যুকে আটক করা হয়েছে।

শাহাবউদ্দীন/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm