ছাত্রলীগ কর্মীকে খুন করে যাবজ্জীবন জেলে থাকতে হবে ৬ জনকে

নগরের পাঁচলাইশ থানার হামজারবাগ রেলগেইট এলাকায় ছাত্রলীগ কর্মী মো. নুরুল আলম রাজু খুনের মামলায় ছয় আসামিকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় ১৫ আসামি পেয়েছেন খালাস। দুই আসামি শিশু হওয়ায় তাদের বিচার অন্য আদালতে চলছে।

মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) দুপুরে চট্টগ্রাম বিভাগীয় দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের বিচারক একেএম মোজাম্মেল হক চৌধুরীর আদালত এ রায় দেন।

যাবজ্জীবন দণ্ড পাওয়া আসামিরা হলেন- জহির, খোরশেদ, রকি, আয়ুব, ইমন এবং দীপু। তাদের প্রত্যেককে ১০ হাজার টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও এক বছর সাজা দিয়েছেন আদালত।

আরও পড়ুন: ব্যবসায়ী খুন—ঢাকা পালিয়েও হলো না রক্ষা, ২ আসামিকে ধরল র‌্যাব

এদিকে খালাস পাওয়া আসামিরা হলেন- আকবর, তারেক, ফয়েজউল্লাহ, আলাউদ্দীন, পিন্টু, রবিন, হায়দার, নুরুল বশর বিল্লু, জাবেদ, জিদান, হাসান, কাকন, জিয়া উদ্দীন, সাজ্জাদ ও ইলিয়াস।

আদালত সূত্রে জানা গেছে, ২০১৪ সালের ২৩ নভেম্বর পাঁচলাইশ বিবিরহাটের নিজ বাসা থেকে ডেকে নিয়ে কুপিয়ে হত্যা করা হয় রাজুকে। ঘটনার পর নিহত রাজুর ভাই মো.কুতুবুল আলম বাদী হয়ে পাঁচলাইশ থানায় ৬ জনের নাম উল্লেখ করে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালের পিপি আইয়ুব খান জানান, নিহত রাজু ছাত্রলীগ ও আওয়ামী লীগের রাজনীতির সঙ্গে জড়িত ছিল। তাকে যারা হত্যা করেছে তারা সবাই একই গ্রুপের ছিল। নিহত রাজু বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিল। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও ছিল। তাদের মধ্যে দ্বন্দ্বের জেরে বন্ধুরা মিলে তাকে কুপিয়ে হত্যা করে। পুলিশের তদন্তে পাওয়া এসব তথ্য রাষ্ট্রপক্ষ সন্দেহাতীতভাবে প্রমাণ করতে পারায় এজাহারভুক্ত ছয়জনকে যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। বাকিদের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণ না হওয়ায় তাদের খালাস দেওয়া হয়েছে।

এএইচ/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm