ক্ষমা চেয়ে পদত্যাগ করলেন মুরাদ হাসান, অডিও-ভিডিও সরানোর নির্দেশ

অবশেষে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর পদত্যাগ করলেন মুরাদ হাসান। মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) দুপুরে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে দেওয়া এক পদত্যাগ পত্রে তিনি ‘স্বেচ্ছায় পদত্যাগ করতে ইচ্ছুক’ বলে জানান। তবে এর আগে বেলা ১২টা পর্যন্ত তিনি পদত্যাগ করেননি, এমনকি তাঁর দপ্তরেও যাননি। বেলা ১টার দিকে সাদা কাগজে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে তিনি পদত্যাগের চিঠি পাঠান।

এর আগের দিন সোমবার দুপুরে তিনি চট্টগ্রাম এসে পাঁচতারকা হোটেল রেডিসন ব্লুতে উঠেন বলে সংবাদমাধ্যমে খবর প্রকাশ হয়েছে। তবে রাতেই তিনি আবারও ঢাকার উদ্দেশে রওয়ানা করেন। কিন্তু এরপর থেকে তাঁর কোনো হদিস নেই। দুদিন ধরে তার ব্যবহুত মোবাইল ফোনও বন্ধ।

আরও পড়ুন: খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে বিদেশ পাঠাতে চায় বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর দপ্তরের এক কর্মকর্তা বলেন, সোমবার মুরাদ হাসান চট্টগ্রামে গেছেন। এর পর থেকে তাঁর সঙ্গে আর কোনো কথা হয়নি। মুরাদ হাসান এখন কোথায় আছেন, তা তিনি জানেন না।

Yakub Group

ক্ষমা চাইলেন মুরাদ

এরই মধ্যে নিজের ভেরিফাইড ফেসবুক আইডি থেকে স্ট্যাটাস দিয়ে মা-বোনদের কাছে ক্ষমা চেয়েছেন তিনি। স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, ‘আমি যদি কোন ভুল করে থাকি অথবা আমার কথায় মা-বোনদের কষ্ট দিয়ে থাকি তাহলে আমাকে ক্ষমা করে দিবেন। মাননীয় প্রধানমন্ত্রী মমতাময়ী মা দেশরত্ন বঙ্গবন্ধু কন্যা জননেত্রী শেখ হাসিনার সকল সিদ্ধান্ত মেনে নিবো আজীবন।’

ভিডিও সরাতে নির্দেশ

আদালতের এদিকে ডা. মুরাদ হাসানের অশ্লীল কথাবার্তার অডিও-ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে সরাতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট। ব্যারিস্টার সৈয়দ সায়েদুল হক সুমনের আবেদনে মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের বেঞ্চ মৌখিক এ নির্দেশ দেন।

মুরাদ হাসানের বিষয়টি আদালতের নজরে এনে ব্যারিস্টার সুমন বলেন, মুরাদ হাসানের ওই কথাবার্তা এত অশ্লীল যে, কোনো শিশু যদি তা শুনে তাহলে তাদের মনে বিরূপ প্রভাব পড়বে। সেগুলো সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে থেকে গেলে তা হবে সবার জন্য বিব্রতকর।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে শীতের তীব্রতার সঙ্গে বাড়ছে করোনার প্রকোপ

এরপর আদালত ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল বিপুল বাগমারকে বলেন, বিটিআরসির চেয়ারম্যানের সঙ্গে কথা বলে ওই অডিও-ভিডিওগুলো সরানোর পদক্ষেপ নিতে। একইসঙ্গে এই বিষয়ের অগ্রগতি আগামীকাল আদালতকে জানাতে।

দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত পরবর্তী সভায়

এদিকে আওয়ামী লীগের পরবর্তী কার্যনির্বাহী সংসদের সভায় মুরাদ হাসানের বহিষ্কারের বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে বলে জানিয়েছেন দলের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম হানিফ। মঙ্গলবার (৭ ডিসেম্বর) সংবাদমাধ্যমকে এ কথা জানান তিনি।

অশালীন, শিষ্টাচারবহির্ভূত, নারীর প্রতি চরম অবমাননাকর বক্তব্য দেওয়ায় মুরাদ হাসানকে আজকের মধ্যে পদত্যাগ করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। সোমবার সন্ধ্যায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের এ কথা জানান।

আরও পড়ুন: গরিবের লাশ দাফন—সিন্ডিকেটের কারসাজিতে বন্ধ বিনামূল্যের ‘শেষ স্পর্শ’

বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নাতনিকে নিয়ে প্রতিমন্ত্রীর করা অশ্লীল মন্তব্যকে ঘিরে কয়েক দিন ধরেই সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে তীব্র সমালোচনা হচ্ছিল। এর মধ্যেই গতকাল সোমবার ফেসবুকসহ বিভিন্ন মাধ্যমে প্রতিমন্ত্রীর ফোনালাপের একটি অডিও ছড়িয়ে পড়ে।

যেখানে একজন চিত্রনায়িকার সঙ্গে কথা বলার সময় তিনি নোংরা ও অশ্লীল ভাষা ব্যবহার করেন। একইসঙ্গে তাঁকে হুমকিও দেন। এ নিয়ে বিভিন্ন মহলে তীব্র প্রতিক্রিয়ার সৃষ্টি হয়।

এসি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm