উপকূলে মেঘমালা, লঘুচাপেও বৃষ্টি নেই নগরে

শনিবার (১২ জুন) বিকেল থেকেই আকাশজুড়ে ছিল মেঘ। তবে সূর্য ডুবে অন্ধকার নেমে এলেও নগরে বৃষ্টি নামেনি।

অথচ রোববার সকাল পর্যন্ত আবহাওয়ার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও দেশের উপকূলীয় এলাকায় একটি লঘুচাপ বিরাজ করছে। এসব কারণে আগামী তিন দিন দেশের বিভিন্ন জায়গায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে সাগরে লঘুচাপ সৃষ্টি হওয়ায় চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্কসংকেত দেওয়া হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে উপকূলের কাছে এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

আবহাওয়ার পূর্বাভাসে আরও বলা হয়েছে, লঘুচাপের প্রভাবে সমুদ্রবন্দরসমূহ, উত্তর বঙ্গোপসাগর ও নিকটবর্তী এলাকার ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। চট্টগ্রামসহ কিছু এলাকায় হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি বা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে।

এদিকে শনিবার বৃষ্টিপাত হয়েছে রাজধানী ঢাকাসহ যশোর, খুলনা, ময়মনসিংহ ও রংপুরে। নোয়াখালীর হাতিয়া এবং কক্সবাজারের টেকনাফে বৃষ্টি হলেও চট্টগ্রাম নগরে এখনও বৃষ্টির দেখা পাওয়া যায়নি।

অথচ দক্ষিণ-পশ্চিম মৌসুমী বায়ু (বর্ষা) দেশজুড়ে বিস্তৃত হয়েছে। এর প্রভাবে দেশের বেশিরভাগ এলাকায় বৃষ্টি হওয়ার কথা।

আবহাওয়াবিদরা বলছেন, লঘুচাপটি ঘনীভূত হয়ে স্থলভাগে পৌঁছলে তা নিম্নচাপে রূপ নেবে। এ সময় অনেক এলাকায় মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হবে। বৃষ্টি ঝরিয়ে লঘুচাপটি ধীরে ধীরে দুর্বল হয়ে পড়বে।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm