‘চাঁদাবাজি মামলার সাক্ষী’ কুপিয়ে—পিটিয়ে রক্তাক্ত করল ব্যবসায়ীকে

ইউপি মেম্বারের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলায় সাক্ষী দিয়ে হামলার শিকার হলেন রাঙ্গুনিয়ার এক ব্যবসায়ী। দিনদুপুরে লাঠিসোটা-রডসহ দেশি অস্ত্র দিয়ে ১২-১৩ জন লোক আবদুল খালেক (৩৮) নামের ওই ব্যবসায়ীকে পিটিয়ে গুরুতর আহত করে।

সোমবার (৯ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার দক্ষিণ রাজানগর ইউনিয়নের রাজারহাট এলাকায় এ হামলার ঘটনা ঘটে। আবদুল খালেক দক্ষিণ রাজানগর ৩ নম্বর ওয়ার্ড রাজাভুবন এলাকার বাসিন্দা। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছেন।

এ ঘটনায় আহতের চাচাত ভাই মুসলিম সিকদার বাদি হয়ে মঙ্গলবার (১০ আগস্ট) রাঙ্গুনিয়া থানায় মামলা করেছেন। এতে ইউপি মেম্বার আবদুস সালাম সিকদারসহ ১২জনকে এবং অজ্ঞাত আরো ৫ জনকে আসামি করা হয়েছে।

জানা যায়, গতবছর ইউপি সদস্য আবদুস সালাম সিকদারসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মুসলিম সিকদার একটি চাঁদাবাজি মামলা করেন। ওই মামলায় সাক্ষী দেন আবদুল খালেক। এতে আবদুল খালেকের ওপর ক্ষিপ্ত হন আবদুস সালাম। এর জের ধরে তিনি দলবল নিয়ে খালেকের ওপর হামলা চালায়। এতে খালেকের পা ভেঙে যায় এবং মাথায় গুরুতর জখম হয়। স্বজনরা তাঁকে উদ্ধার করে প্রথমে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করান।

Yakub Group

আরও পড়ুন: পথে পথে ‘নেতার’ চাঁদাবাজি—কমার্স কলেজ ছাত্রলীগ নেতা কারাগারে

রাজাভুবন ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ সভাপতি মুসলিম সিকদার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আবদুল খালেক যুবলীগের কর্মী। রাজারহাট বাজারে স্থানীয় ইউপি মেম্বার আবদুস সালাম সিকদার, ফারুক, জাহাঙ্গীর, হারুন, ফোরকান, হাবীবসহ ১২-১৩ জন লোক হামলায় অংশ নেয়। তারা দেশি ধারালো অস্ত্র, রড ও লাঠিসোটা দিয়ে খালেককে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে জখম করে। গতবছর আমি ইউপি সদস্য সালাম সিকদারসহ কয়েকজনের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি মামলা করি। সেই মামলার সাক্ষী ছিলেন আবদুল খালেক। এর জের ধরে সালাম সিকদার দলবল নিয়ে খালেককে মারধর করেছে।

এ বিষয়ে জানতে দক্ষিণ রাজানগর ইউপি সদস্য আবদুস সালাম সিকদারের মোবাইল ফোনে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি। পরে ক্ষুদেবার্তা দেওয়া হলেও তিনি কোনো উত্তর দেননি।

যোগাযোগ করা হলে রাঙ্গুনিয়া থানার ওসি মো. মাহবুব মিলকী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়েছিলাম। তবে সেখানে কাউকে পাওয়া যায়নি। এ ঘটনায় মুসলিম সিকদার বাদি হয়ে ১২ জনকে আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেছেন।

সিএম/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm