মসজিদে ঢুকে নৌকার সমর্থকদের হামলা౼স্বতন্ত্র প্রার্থীর বোনসহ আহত ১১

আনোয়ারার বরুমচড়ায় ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচনে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মো. শাহাদাত হোসেন চৌধুরী ও সমর্থকদের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে।

শুক্রবার (২৪ ডিসেম্বর) দুপুর ১টায় উপজেলার পশ্চিম বরুমছড়া শাহজীপাড়া জামে মসজিদে এ ঘটনা ঘটে।

এতে চেয়ারম্যান প্রার্থীর ছোট বোনসহ উভয়পক্ষের ১১জন সমর্থক আহত হয়েছেন। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

আহতরা হলেন౼ স্বতন্ত্র প্রার্থীর ছোট বোন শাহিদা আকতার (৪০), মো. এহলাস (২৪), বুলু আকতার (৫০), শামীমা আকতার (৪০), ইদ্রিছ, (৩৫), ইমাম শরীফ (৮০) এবং নৌকা প্রার্থীর সমর্থক মো. মামুন (৫৫), মো. আলী (৪৫), মো. হাবীব (৪০), নুরুল হক (৪৫) ও মো. ইউসুফ (৩২)। এদের মধ্যে শাহিদা ও এহলাসকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

Yakub Group

আরও পড়ুন : চাঁদা না পেয়ে কিশোর গ্যাংয়ের হামলা—বাঁচল না সেই ব্যবসায়ী

সরোজমিন স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শুক্রবার বেলা সাড়ে ১২টায় ইউনিয়নের শাহজীপাড়া ও বদলমাঝির বাড়ি এলাকায় নিবার্চনি প্রচারণায় যান স্বতন্ত্র প্রার্থী শাহদাত হোসেন চৌধুরী। জুমার নামাজ পড়ার জন্য সমর্থকদের নিয়ে শাহজীপাড়া জামে মসজিদে প্রবেশ করলে নৌকা প্রার্থীর সমর্থকরা মসজিদের ভেতরে ঢুকে লাঠিসোঠা নিয়ে হামলা করে। এ সময় উভয়পক্ষের সমর্থকদের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়ার ঘটনা ঘটে।
ঘটনার পর প্রায় তিন ঘণ্টা অবরুদ্ধ হয়ে পড়েন শাহদাত হোসেন চৌধুরী ও তার সমর্থকরা। পরে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) তানভীর হাসান চৌধুরী ও থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম দিদারুল ইসলাম গিয়ে তাদের উদ্ধার করেন।

শাহদাত হোসেন চৌধুরী অভিযোগ করে বলেন, শুক্রবার সকাল থেকে আমার বোনসহ সমর্থকদের নিয়ে আমার নির্বাচনি এলাকায় প্রচারণা চালাই। দুপুরে জুমার নামাজ আদায় করতে শাহজীপাড়া এলাকার জামে মসজিদে প্রবেশ করি। ওইসময় প্রতিপক্ষের লোকজন দেশীয় অস্ত্র-সস্ত্র নিয়ে আমাদের ওপর হামলা করে। মসজিদের বাইরে থাকা আমার বোনকেও তারা মারধর করে আহত করে। এদের হামলায় আমার বেশ কয়েকজন সমর্থকও আহত হয়েছেন।

জানতে চাইলে আওয়ামী লীগ মনোনীত চেয়ারম্যান প্রার্থী সামশুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, কয়েকদিন ধরে বিদ্রোহী প্রার্থী শাহদাত হোসেন চৌধুরীর সমর্থকরা ফেসবুকে উস্কানিমূলক পোস্ট দিচ্ছে। শুক্রবার দুপুরে দুপক্ষের মধ্যে একটু হালকা সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। এ ঘটনায় আমার সমর্থকরাও আহত হয়েছে। আমি থানায় একটি অভিযোগ করেছি।

ঘটনার বিষয়ে আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, নির্বাচনি প্রচারণাকে কেন্দ্র করে দুপক্ষের সমর্থকদের মধ্যে মারামারির ঘটনা ঘটেছে। খরব পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। বর্তমানে ঘটনাস্থলে পুলিশ মোতায়েন রয়েছে। এ ঘটনায় কোনো পক্ষ থানায় অভিযোগ করেনি।

ইমরান/ডিসি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm