ভেঙে গেছে বাঁধ, পানির নিচে গ্রামের পর গ্রাম

কয়েক দিনের টানা বৃষ্টি ও জোয়ারের পানিতে প্লাবিত হয়েছে আনোয়ারা উপজেলার বিভিন্ন নিম্নাঞ্চল। সাগরে লঘুচাপের কারণে জোয়ারের পানিতে বাঁধ ভেঙে উপজেলার দক্ষিণ বারখাইন এলাকা প্লাবিত হয়েছে।

শুক্রবার (৩০ জুলাই) বিকালে বারখাইন এলাকায় সরেজমিন দেখা গেছে, শঙ্খ নদীর বাঁধ ভেঙে জোয়ারের পানি প্রবেশ করছে। তৈলারদ্বীপ এরশাদ আলী উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠ, জেলে পাড়াসহ আশপাশের সড়ক ও বসতঘরে পানি ঢুকে পড়েছে।

স্থানীয়দের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত এক সপ্তাহ ধরে বৃষ্টির কারণে উপজেলার কৈনপুরা, ডুমুরিয়া, দক্ষিণ বারখাইন, তৈলারদ্বীপ জেলেপাড়া, বরুমচড়ার গুচ্ছগ্রাম, বেলচুড়াসহ বেশ কিছু নিম্নাঞ্চলে পানিবন্দি হয়ে পড়েছে। তলিয়ে গেছে নির্মিত পাকা সড়ক ও বেঁড়িবাধ। এতে করে ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে এলাকার মানুষদের।

স্থানীয় ইউপি সদস্য আবদুল আজিজ বলেন, চারদিন ধরেই এলাকায় শঙ্খ নদীতে জোয়ারের পানি বেড়ে বাঁধ টপকে মানুষের বাড়িঘরে ঢুকে পড়েছে। ফলে স্থানীয়রা রান্নাও করতে পারছেন না। এসব এলাকায় জরুরি ভিত্তিতে ত্রাণসামগ্রী প্রয়োজন।

আনোয়ারা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) শেখ জোবায়ের আহমেদ বলেন, বৈরী আবহাওয়ার কারণে সাগর ও নদীতে জোয়ারের পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। এতে কয়েকটি এলাকায় বাঁধ ভেঙে পানি প্রবেশ করেছে। ক্ষতিগ্রস্তদের ত্রাণ সাহায্যের ব্যবস্থা করা হবে।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) দুপুরে দক্ষিণ বারখাইন ইউনিয়নের ভাঙন এলাকা পরিদর্শন করেছেন ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এম জাহাঙ্গীর আলম। এ সময় তিনি বর্ষা শেষে এলাকায় বাঁধ নির্মাণের ব্যবস্থা করা হবে বলে জানান।

ইমরান/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm