আবারও রক্তাক্ত ৪, আনোয়ারা—কর্ণফুলীতে বেড়েছে দুর্ঘটনা

আনোয়ারা ও কর্ণফুলীতে বাড়ছে সড়ক দুর্ঘটনা। প্রতিদিনই ঘটছে ছোট-বড় দুর্ঘটনা। ঝরছে তাজা প্রাণ। গত দুদিনেও দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়েছে ৬ জন। এসব দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছে এক মাদ্রাসাছাত্র।

রোববার (৯ জানুয়ারি) সকালে উপজেলার চাতরী চৌমুহনী এলাকায় রিকশা-অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় নাজিম শাহ্ (৩৫), শামসুর আলম (৫৫), জিকু (২৫) ও রিকশা চালক মোজাম্মেল (৪৫) গুরুতর আহত হন। পরে তাদের উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে নিয়ে যান স্থানীয়রা। রিকশাচালক মোজাম্মেলের অবস্থা গুরুতর বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন: কেরানীহাটে সড়ক দুর্ঘটনা—বাঁচল না সেই পুলিশ কনস্টেবল

আহত নাজিম শাহ্ জানান, বাড়ি থেকে রিকশা নিয়ে চাতরি চৌমুহনী যাওয়ার পথে হোটেল আল বাইকের সামনে আসলে দক্ষিণ দিক থেকে দ্রুতগতির একটি অটোরিকশা ধাক্কা দেয়। আমরা প্রাথমিক চিকিৎসা নিয়ে চলে এলেও রিকশাচালককে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। তাঁর অবস্থা গুরুতর।

এর আগে গত শনিবার (৮ জানুয়ারি) দুপুরে বড় উঠানের ফোর স্টার সিএনজি রি-ফুয়েলিং স্টেশনের সামনে বালুবোঝাই ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে আবু বক্কর (১৫) নামে এক মাদ্রাসার শিক্ষার্থী নিহত হয়।

একইদিন বিকাল সাড়ে ৪টার দিকে বারখাইনের শোলকাটা এলাকায় মোটরসাইকেলের ধাক্কায় মো. আবুল হোসেন (১৫) নামে এক পথচারী এবং মোটরসাইকেল চালক মো. হানিফ (২৮) গুরুতর আহত হন।

প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা যায়, শনিবার বিকাল সাড়ে ৪টায় আবুল হোসেন ও তার বন্ধু মো. সাঈদ পিএবি সড়কের শোলকাটা এলাকায় অটোরিকশা থেকে নামেন। এরপর তারা রাস্তা পারা হওয়ার সময় দ্রুতগতির একটি মোটরসাইকেল আবুল হোসেনকে ধাক্কা দেয়। তিনি পড়ে গিয়ে গুরুতর আহত হন। এ ঘটনায় মোটরসাইকেল চালক হানিফও আহত হন।

ইমরান/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm