চট্টগ্রামে যুবককে ছুরি মেরে খুন করে পালিয়েছিল শরীয়তপুর ও ঢাকায়

নগরের খুলশী আমবাগান এলাকার চাঞ্চল্যকর হানিফ হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ ৪ জনকে আটক করেছে র‌্যাব-৭।

রোববার (১৩ নভেম্বর) শরিয়তপুর ও কেরানীগঞ্জ এলাকা থেকে তাদের আটক করা হয়েছে বলে নিশ্চিত করেন র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো. নুরুল আবছার।

আটকরা হলেন- শরীয়তপুর জেলার নরিয়া উপজেলা এলাকার আমির হোসেনের ছেলে মামলার প্রধান আসামি মো. সোহেল ওরফে ভাণ্ডারী (২১) ও মো. হাসান (১৯), শরীয়তপুর জেলার রহমান আলীর ছেলে আমির হোসেন (৪৮) ও মো.আমির হোসেনের ছেলে মো. সোহাগ (২৩)।

আরও পড়ুন: এলোপাতাড়ি ছুরি চালাল চোর—বাবা খুন, ছেলে-ভাতিজা রক্তাক্ত

এর আগে মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) সন্ধ্যায় মো. নুরুল ইসলাম (৪০) ও রোকসানা বেগম (৩৬) নামের দুজনকে গ্রেপ্তার করে খুলশী থানা পুলিশ। এদের মধ্যে মো. নুরুল ইসলাম মামলার সাত ও রোকসানা বেগম নয় নম্বর আসামি।

Thai Food

র‌্যাব জানায়, নগরের খুলশী আমবাগান এলাকার মো. আলাউদ্দিনের ছেলে মো. হানিফ (২০) খুনের ঘটনায় খুলশী থানায় হত্যা মামলা করেন নিহতের বড় ভাই জয়নাল আবেদিন। আটক আমির হোসেনের বিরুদ্ধে নগরের বিভিন্ন থানায় হত্যা, অস্ত্র ও বিশেষ ক্ষমতা আইনে তিনটি মামলা রয়েছে।

র‌্যাব-৭ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) মো.নুরুল আবছার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, চাঞ্চল্যকর হানিফ হত্যা মামলার প্রধান আসামিসহ ৪ জন শরীয়তপুর ও কেরানীগঞ্জ এলাকায় অবস্থান করছেন— এমন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান পরিচালনা করে তাদের আটক করা হয়।

আরও পড়ুন: স্ত্রীকে খুন করে নিজের পেটেও ছুরি চালাল স্বামী

তিনি আরও বলেন, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামিরা অটোরিকশা ভাড়া ও পূর্বশত্রুতার জের ধরে হানিফকে হত্যার কথা শিকার করেন। আইনানুগ প্রক্রিয়া শেষে তাদের খুলশী থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, সোমবার (৮ নভেম্বর) বিকাল ৫টার দিকে রেলওয়ে কলোনীর তরুণ সংঘের মাঠে খেলার সময় ডেকে নিয়ে বায়তুল আমান জামে মসজিদের সামনে ছুরিকাঘাতে মো. হানিফকে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় নিহতের ভাই অনিকও ছুরিকাঘাতে গুরুতর আহত হন। পরে খুলশী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন নিহতের বড় ভাই জয়নাল আবেদিন।

এএইচ/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm