গণপরিবহনে ভাড়ায় নয়ছয় : এবার সিএমপির নতুন নির্দেশনা

ডিজেলে দাম বাড়ার পর গণপরিবহণে বাড়তি ভাড়ার নৈরাজ্য যেন থামছে না। ডিজেলচালিত গাড়ির পাশাপাশি সিএনজি চালিত গাড়িগুলোও যাত্রীদের কাছ থেকে আদায় করছে অতিরিক্ত ভাড়া। এ নিয়ে বিভিন্ন রুটে যাত্রী, চালক ও হেলপারের সঙ্গে প্রতিনিয়তই বাকবিতণ্ডার পাশাপাশি ঘটছে অপ্রীতিকর ঘটনা।

এবার সিএনজিচালিত গাড়িতে বাড়তি ভাড়া আদায় বন্ধে নতুন নির্দেশনা দিয়েছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)।

স্টিকার ছাড়া সিএনজি গাড়িগুলোকে রিফিল না দিতে স্টেশনগুলোকে নির্দেশনা দিয়েছে সিএমপি। এছাড়া স্টেশনের কমকর্তা ও কর্মচারীদের গাড়ি চিহ্নিতকরণ স্টিকার সম্পর্কে অবহিত করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: গণপরিবহনে লাগছে স্টিকার, টাঙানো হচ্ছে ভাড়ার তালিকা

রোববার (১৪ নভেম্বর) সিএমপির পক্ষ থেকে নগরের সিএনজি স্টেশনগুলোতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়।

নির্দেশনায় বলা হয়, সাম্প্রতিক সময়ে ডিজেলের দাম বৃদ্ধিকে কেন্দ্র করে একশ্রেণীর অসাধু চক্র ডিজেলচালিত গাড়ির পাশাপাশি সিএনজিচালিত গাড়িতেও ভাড়া বৃদ্ধি করে । বিষয়টি নিয়ন্ত্রণে ও সাধারণের দুর্ভোগ লাঘবে সরকারিভাবে ডিজেল ও সিএনজিচালিত গাড়ির ভাড়া নির্ধারণ করে দেওয়া হয়। পাশাপাশি ডিজেল ও সিএনজিচালিত গাড়ি চিহ্নিতকরণে ডিজেলচালিত গণপরিবহনে লাল ও সিএনজিচালিত গণপরিবহনে সবুজ স্টিকার লাগানো হয়। এতে জনসাধারণ সহজেই ডিজেল কিংবা সিএনজিচালিত গাড়ি নির্দিষ্ট করতে পারবেন।

গত শনিবার (১৩ নভেম্বর) সকাল ১১টায় পরিবহন সংগঠনগুলোর নেতাদের উপস্থিতিতে সিএমপির ট্রাফিক বিভাগ ও বিআরটিএর যৌথ উদ্যোগে ডিজেল ও সিএনজিচালিত গাড়ি নির্দিষ্ট করতে গণপরিবহণে স্টিকার লাগানো শুরু হয়। এছাড়া পরিবহনের ভেতরে টাঙানো হয় ভাড়া নির্ধারণী তালিকা।

Thai Food

এর আগে বুধবার (১০ নভেম্বর) বিকালে সিএমপির সদর দপ্তরের সম্মেলন কক্ষে গণপরিবহন মালিক ও শ্রমিক নেতাদের সঙ্গে পুলিশ এবং বিআরটিএ কর্মকর্তাদের নিয়ে সমন্বয়সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার (৩ নভেম্বর) রাতে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম লিটারে ১৫ টাকা বাড়ানোর ঘোষণা দেওয়া হয়। এরপর বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) থেকে কার্যকর হয় বাড়তি দাম।

আরও পড়ুন: ‘গণপরিবহন’—চট্টগ্রামে বাড়তি ভাড়া বন্ধে নতুন সিদ্ধান্ত

দাম বাড়ানোর বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পরদিনই শুক্রবার (৫ নভেম্বর) সকাল ছয়টা থেকে দেশজুড়ে অনির্দিষ্টকালের পরিবহন ধর্মঘট শুরু করে বাস, ট্রাকসহ পণ্যবাহী যানবাহন মালিকেরা। যদিও রোববার (৭ নভেম্বর) সকাল ৬টা থেকে চট্টগ্রামে চলতে শুরু করে গণপরিবহন।

পরে রোববার (৭ নভেম্বর) ঢাকায় বিআরটিএর প্রধান কার্যালয়ে পরিবহন মালিক সমিতির নেতাদের সঙ্গে বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী দূরপাল্লার বাসের ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১ টাকা ৪২ পয়সার জায়গায় করা হয় ১ টাকা ৮০ পয়সা। এক্ষেত্রে ভাড়া বাড়ানো হয় ২৭ শতাংশ।

অপরদিকে ঢাকা-চট্টগ্রামসহ মহানগরগুলোতে ২৬ দশমিক ৫ শতাংশ ভাড়া বাড়ানো হয়। নগরে বড় বাসের ভাড়া প্রতি কিলোমিটারে ১ টাকা ৭০ পয়সার জায়গায় ২ টাকা ১৫ পয়সা করা হয়। অপরদিকে মিনি বাসের ভাড়া ১ টাকা ৬০ পয়সার জায়গায় করা হয় ২ টাকা ৫ পয়সা।

এদিকে ভাড়া সম্পর্কিত অভিযোগ সিএমপি কন্ট্রোল রুম ০১৩২০০৫৭৯৯৮, সিএমপি ট্রাফিক কন্ট্রোল রুম ০১৯১৯৯১১৯১১ এবং জাতীয় জরুরি সেবা ৯৯৯ (টোল ফ্রি) নম্বরে জানাতে বলা হয়েছে।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm