খাল ভরাট করে পানি প্রবাহ বন্ধ করে দিয়েছে বেপজা, মানববন্ধনে প্রতিবাদ

মিরসরাইয়ে ডাবরখালী নামের একটি খালের পানি প্রবাহ বন্ধ করে দেওয়ার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে এলাকাবাসী।

শনিবার (১৫ জানুয়ারি) সকাল ১১টার দিকে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগর সড়কের চরশরতে স্থানীয় জনপ্রতিনিধি ও এলাকার লোকজন এ মানববন্ধন করে।

এলাকাবাসী জানায়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরে বাংলাদেশ রপ্তানি প্রক্রিয়াকরণ এলাকা কর্তৃপক্ষের (বেপজা) নিজস্ব অর্থনৈতিক অঞ্চলের উন্নয়নকাজের কারণে স্থানীয় ডাবরখালী নামের একটি গুরুত্বপূর্ণ খালের পানি প্রবাহ বন্ধ হয়ে গেছে। এতে উপজলার ইছাখালী ইউনিয়নের বেশ কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হচ্ছে। বর্ষায় যার ভয়াবহতা আরো তীব্র হবে।

আরও পড়ুন : মার্কেট নির্মাণের জন্য ভরাট চলছে বছরজুড়ে পানি থাকা শতবর্ষী জলাশয়

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া ইছাখালী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নুরুল মোস্তফা বলেন, ‘আমার ইউনিয়ন এলাকার চরশরৎ হয়ে বয়ে চলা ডাবরখালী খালের পানি এতদিন বঙ্গোপসাগরে গিয়ে পড়তো। বেপজা তাদের অর্থনৈতিক অঞ্চলের উন্নয়নকাজ করতে গিয়ে খালের পানি প্রবাহ পুরোপুরি বন্ধ করে দিয়েছে। বারবার আমরা যোগাযোগ করার পরও কোনো সুরাহা করেনি। বরং এখন শুকনো মৌসুম হলেও খালের পানি উপচে পড়ছে গ্রামের পর গ্রামে। এটির প্রতিকার না হওয়া পর্যন্ত মানুষ আন্দোলন চালিয়ে যাবে।’

Yakub Group

এলাকাবাসীর সঙ্গে মানববন্ধনে একাত্মতা ঘোষণা করেন উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. মিনহাজুর রহমান।

উপজেলা চেয়ারম্যান মো. জসিম উদ্দিন বলেন, ‘জনতার মানববন্ধনের খবরে আমরা ঘটনাস্থলে যাই। তাৎক্ষণিক বেপজার নির্বাহী চেয়ারম্যানের সঙ্গে বৈঠক করেছি। সেখানে খাল বন্ধ করার পুরো চিত্র উনাকে দেখিয়েছি। তিনি আমাদের আশ্বস্ত করেছেন, আগামী বর্ষা মৌসুমের আগেই এটির সুরাহা করবেন।’

তিনি আরো বলেন, ‘ভরাট করার আগেও আমরা খালটি উন্মুক্ত রাখার ব্যাপারে বেপজার সঙ্গে বৈঠক করেছিলাম। তারা এটি না মেনে ভরাট করে উন্নয়নকাজ করছে। আমরা বলেছি বর্ষার আগে সমাধান না হলে জনগণকে নিয়ে আবারো আন্দোলনে যাবো।’

এদিকে এ প্রসঙ্গে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব শিল্পনগরের প্রজেক্ট ডিরেক্টর আবদুল্লাহ আল মোহাম্মদ ফারুক আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ‘এ বিষয়ে বেপজার কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক হয়েছে। ইতোমধ্যে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে এ সংক্রান্ত একটি প্রস্তাব পাঠানো হয়েছে। শিগগির কারিগরি টিম বসে খালের মূল নকশা ঠিক রেখে এটির সুষ্ঠু সমাধান করবেন।’

আজিজ/ডিসি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm