হাইকোর্টে পিটিশন—দুদকের মামলায় ওসি প্রদীপ দম্পতির সাক্ষ্যগ্রহণ পিছিয়েছে

টেকনাফ থানার বরখাস্ত হওয়া ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিরুদ্ধে দুদকের করা অবৈধ সম্পদ অর্জন মামলার সাক্ষ্যগ্রহণ পিছিয়েছে। আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি সাক্ষ্যগ্রহণের নতুন তারিখ নির্ধারণ করেছেন আদালত।

সোমবার (১৭ জানুয়ারি) দুপুরে চট্টগ্রাম বিভাগীয় বিশেষ জজ মুন্সী আবদুল মজিদের আদালত এই আদেশ দেন।

এর আগে গত ১৫ ডিসেম্বর একই আদালত ওসি প্রদীপ কুমার দাশের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জন মামলার বিচার শুরুর আদেশ দিয়েছিলেন।

দুদকের আইনজীবী মাহমুদুল হক মাহমুদ বলেন, গত বছরের ১৫ ডিসেম্বর প্রদীপ দম্পতির বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগ গঠন করা হয়েছিল। তবে অভিযোগ গঠনের বিরুদ্ধে আসামিপক্ষ উচ্চ আদালতে মামলা থেকে অব্যাহতির আবেদন করেন। তাই আজ (সোমবার) নির্ধারিত তারিখে সাক্ষ্যগ্রহণ শুরু হয়নি।

আরও পড়ুন: ওসি প্রদীপের রাষ্ট্রীয় পুরস্কার বাতিলে আদালতে আবেদন

প্রদীপ কুমার দাশের আইনজীবী রতন চক্রবর্তী জানান, আজ (সোমবার) সাক্ষ্যগ্রহণের জন্য দিন ধার্য ছিল। চার্জ গঠনের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে একটি পিটিশন দায়ের করা হয়েছে। পিটিশন হাইকোর্টে পেন্ডিং থাকায় নির্দিষ্ট সময়ের জন্য সাক্ষ্যগ্রহণ স্থগিত রাখার আবেদন করা হয়। শুনানি শেষে আদালত সাক্ষ্যগ্রহণ স্থগিত করে আগামী ১৭ ফেব্রুয়ারি পরবর্তী দিন ধার্য করেন।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ২৩ আগস্ট দুদকের সমন্বিত জেলা কার্যালয়, চট্টগ্রাম-২ এর তৎকালীন সহকারী পরিচালক মো. রিয়াজ উদ্দিন বাদি হয়ে প্রদীপ দাশের বিরুদ্ধে অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগে মামলা করেন।

মামলায় প্রদীপের স্ত্রী চুমকিকেও আসামি করা হয়। তাঁদের বিরুদ্ধে ৩ কোটি ৯৫ লাখ ৫ হাজার ৬৩৫ টাকার জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদ অর্জন, সম্পদের তথ্য গোপন ও মানি লন্ডারিংয়ের অভিযোগ আনা হয়।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm