আওয়ামী লীগের অন্তর্কোন্দল চরমে, কেন্দ্রে ডাক পড়েছে সাংসদ জাফর ও জেলা নেতাদের

কক্সবাজারে চরম আকার নিয়ে আওয়ামী লীগের অন্তর্কোন্দল। এ অবস্থায় কেন্দ্রে ডাক পড়েছে স্থানীয় সাংসদ জাফর আলমসহ কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের। আগামীকাল রোববার দলীয় সভানেত্রীর কার্যালয়ে বৈঠক হবে।

এর আগে বৃহস্পতিবার (১০ জুন) কক্সবাজার জেলা আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সাংসদ জাফর আলমকে চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয় চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি সরওয়ার আলমকে। এ ঘটনায় সাংসদের অনুসারী নেতা-কর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল করে সড়ক-মহাসড়ক অবরোধ করে।

সাংসদ জাফর আলমের দাবি, ঈর্ষান্বিত হয়ে জেলা সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক অগঠনতান্ত্রিকভাবে এ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।

তবে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমানের দাবি, দলীয় শৃঙ্খলাভঙ্গের দায়ে কার্যনির্বাহী কমিটির সভায় সর্বসম্মতিতে সাংসদকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে।

এর মেয়র আলমগীর সংবাদ সম্মেলন ডেকে অভিযোগ করেন, সাংসদের নেতৃত্বে তাঁদের ওপর হামলা করা হয়েছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে জেলা আওয়ামী লীগ বৃহস্পতিবার কার্যনির্বাহী কমিটির সভা ডেকে সাংসদকে অব্যাহতি দেন।

সাংসদকে অব্যাহতির খবর ছড়িয়ে পড়লে বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টা থেকে সাড়ে ১১টা পর্যন্ত বিভিন্ন সড়ক-মহাসড়ক অবরোধ করেন ক্ষুব্ধ নেতা-কর্মীরা।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান বলেন, সাংসদের জঘন্য ভাষা নিয়ে আমরা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের এবং কেন্দ্রীয় নেতাদের অভিযোগ দিয়েছি। এ ঘটনায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ রোববার আমাদের ডেকেছে।

জানা গেছে, সাংসদ জাফর আলম এবং জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদককে ডেকেছে কেন্দ্র। রোববার দুপুর তিনটায় কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের চট্টগ্রাম বিভাগের দায়িত্বে থাকা নেতারা দলীয় সভানেত্রীর রাজনৈতিক কার্যালয়ে বৈঠকে বসবেন।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm