সীতাকুণ্ডে পর্যটন ব্যবসা বাড়বে ১০ গুণ

কর্মশালায় ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী

বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (অতিরিক্ত সচিব) জাবেদ আহমেদ বলেছেন, কোভিড-১৯ পরবর্তী সীতাকুণ্ডে পর্যটকদের আগমন ১০ গুণ বাড়বে। সরকার দেশের মোট ৬০টি অঞ্চলকে পর্যটন এলাকা ঘোষণা করেছেন। এসব এলাকার মধ্যে সীতাকুণ্ডও রয়েছে।

সোমবার (৭ জুন) বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের আয়োজনে `গ্রামীণ উন্নয়নে পর্যটন’ শীর্ষক এক ভার্চুয়াল কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সীতাকুণ্ডবাসীকে এখন থেকেই প্রস্তুতি নিতে হবে। ট্যুরিজম শিল্পের প্রচার, প্রসার ও উন্নয়নে সরকার সরাসরি ভূমিকা রাখবেন। সীতাকুণ্ডের পর্যটন শিল্পের উন্নয়নে সবার সহযোগিতা কামনা করেন তিনি।

সীতাকুণ্ড উপজেলা নির্বাহী অফিসার মিল্টন রায়ের সভাপতিত্বে কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করেন, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের পরিচালক আবু তাহের মুহাম্মদ জাবের।

ট্যুরিজম বোর্ডের উপ-পরিচালক ইসরাত জাহান কেয়ারের পরিচালনায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, ইপসা’র প্রধার নির্বাহী মো. আরিফুর রহমান, সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবের সভাপতি সৌমিত্র চক্রবর্তী, সাবেক সভাপতি এম সেকান্দর হোসাইন, সাধারণ সম্পাদক লিটন কুমার চৌধুরী, ১ নম্বর সৈয়দপুর ইউপি চেয়ারম্যান এইচ এম তাজুল ইসলাম নিজামী, সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বনিক।

কর্মশালায় প্রশ্ন-উত্তর পর্বে বক্তব্য রাখেন সীতাকুণ্ড প্রেসক্লাবের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক নাসির উদ্দিন অনিক, কুমিরা গার্লস আবাসিক স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মো. নাসির উদ্দীন।

এতে যুক্ত ছিলেন সাংবাদিক নজরুল ইসলাম, কৃষ্ণচন্দ্র দাস, সাইফুল ইসলাম রুবেল, সঞ্জয় চৌধুরী, এসএম ইকবাল প্রমুখ।

আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm