সতিনই ‘খুন’ করল শাহনাজকে?

সীতাকুণ্ডের ফৌজদারহাটে এক গৃহবধূ খুন হয়েছেন। এ ঘটনায় পুলিশ নিহতের সতিন সুলতানা বেগমকে (২০) আটক করেছে।

শুক্রবার (৩১ ডিসেম্বর) দুপুর দেড়টার দিকে এ ঘটনা ঘটে।

নিহতের নাম শাহনাজ বেগম (২৪)। পারিবারিক কলহের জেরে এ হত্যাকাণ্ড বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে। দুজনই বক্ষব্যাধি হাসপাতালের ভেতরে স্টাফ কোয়ার্টারের বাসিন্দা মো. আজিমের স্ত্রী।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ছলিমপুর ইউনিয়নের ফৌজদারহাট এলাকার বক্ষব্যাধি হাসপাতালের ভেতরে একটি স্টাফ কোয়ার্টারে প্রথম স্ত্রী শাহনাজ বেগম ও দুই ছেলেকে নিয়ে থাকতেন মো. আজিম।

আরও পড়ুন : ক্ষোভ থেকেই বোনকে ধর্ষণ, ভাইকে কুপিয়ে খুন

আজিম বলেন, বড় ছেলেকে নিয়ে গ্রামের বাড়ি আনোয়ারায় একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যাই। আমার প্রথম স্ত্রী শাহনাজ বেগম ও ছোট ছেলেকে বাসায় রেখে যাই। এরপর সকাল ১১টায় তার সঙ্গে আমার কথাও হয়। তখন ঘরে একা থাকতে ভয় করছে বলে জানায় শাহনাজ।

দুপুর দেড়টার দিকে আমার দ্বিতীয় স্ত্রী সুলতানা বেগম (২০) ফোন করে জানায়, শাহনাজকে খুন করে কে বা কারা ছাদে ফেলে রেখে গেছে। আমার ধারণা বাসায় আমরা না থাকার সুযোগে শাহনাজকে গলাকেটে খুন করেছে সুলতানা।

যোহাযোগ করা হলে সীতাকুণ্ড মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কালাম আজাদ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, পারিবারিক কলহের জেরে এ ঘটনা ঘটেছে। ঘটনার পর সুলতানা পালিয়ে যাওয়ার সময় এলাকাবাসী তাকে আটক করে থানায় খবর দেয়। পুলিশ ওখান থেকে তাকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। সুলতানাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সালাউদ্দিন/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm