‘নেতার কাণ্ড’—সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে সরকারি জায়গা দখল, বাঁধা দিলেই হুমকি-ধমকি

‘আমি সরকারি দলের লোক। জমি দখলে আমার কোনো অনুমতির প্রয়োজন হয় না। এখন কেবল শুরু, সামনে আরো অনেক কিছু দেখবেন।’

সরকারি জমি দখলে বাধা দিতে গেলে সড়ক ও জনপথের (সওজ) এক উপ-প্রকৌশলীকে এভাবেই হুমকি দেন হাটহাজারী পৌরসভা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মো. জাকির।

এমনকি ওই প্রকৌশলীকে ‘দেখে নেওয়ার’ হুমকিও দিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে জাকিরের বিরুদ্ধে।

জানা যায়, কিছুদিন আগে মো. জাকির ও মো. নাজিমের নেতৃত্বে আনিসের খাল ব্রিজের পূর্বদিকে  সরকারি জায়গায় দখলদারচক্র পাকা ভবন নির্মাণ শুরু করে। ওই জায়গায় ‘শেখ রাসেল স্মৃতি সংসদ ও বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ’ নামে ব্যানার টাঙায় তারা।

স্মৃতি সংসদ নাম দিলেও এখানে মূলত সিএনজিচালিত অটোরিকশার গ্যারেজ নির্মাণ করছে বলে জানা যায়।

খবর পেয়ে সড়ক ও জনপথ হাটহাজারী সড়ক শাখার উপ-প্রকৌশলী মো. সাজ্জাদ হোসেন ৪ জুন নির্মাণকাজে বাধা দিতে গেলে নিজেকে সরকারি দলের লোক পরিচয় দিয়ে তাকে ‘দেখে নেওয়ার’ হুমকি দেন জাকির।

এ সময় জাকির ও তার লোকজন নির্মাণকাজ চালিয়ে যাওয়ার ঘোষণা দিয়ে বলেন, সরকারি জায়গায় বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ করছি, এতে সমস্যা কীসের। আমার কোনো অনুমতির প্রয়োজন হয় না। যখন সরকারের দরকার হবে তখন আমরা ছেড়ে দেব।

পরে উপ-প্রকৌশলী মো. সাজ্জাদ হোসেন হাটহাজারী থানায় জমি দখল রোধে অভিযোগ ও জীবনের নিরাপত্তা চেয়ে একটি জিডি করেন।

অভিযোগ পেয়ে হাটহাজারী মডেল থানার এসআই সাইদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে কাজ বন্ধ করে দিলেও পুলিশ চলে আসার পর আবার নির্মাণকাজ শুরু করে জাকির বাহিনী।

জাকিরের সহযোগী নাজিমের বাড়ি রাউজান এলাকায় হলেও তিনি হাটহাজারীতে বোনের বাড়িতে থাকেন। ক্ষমতাসীন দলের নাম ভাঙিয়ে জাকিরের সঙ্গে অপকর্ম করে কামাচ্ছেন টাকা।

এ বিষয়ে এসআই মো. সাইদুল ইসলাম বলেন, অভিযোগ পেয়ে আমরা ঘটনাস্থলে গিয়ে নির্মাণকাজ বন্ধ করে দিয়েছি। বিষয়টি তদন্ত চলছে। তবে প্রকৌশলীকে ‘দেখে নেওয়ার’ হুমকির বিষয়ে তিনি কিছু জানেন বলে জানান।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রুহুল আমিন এ বিষয়ে আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, বিষয়টি নিয়ে সওজের নির্বাহী প্রকৌশলীর সঙ্গে আলাপ করেছি। এ বিষয়ে যেকোনো ধরনের সহযোগিতা করবে উপজেলা প্রশাসন।

জায়গা দখলের বিষয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সোহরাব হোসেন নোমান বলেন, এলাকায় দলীয় কার্যালয় না থাকায় পরিত্যক্ত জায়গায় দলীয় কার্যালয় নির্মাণ করা হচ্ছে। তবে এই জায়গা পানি উন্নয়ন বোর্ডের, সওজের নয়।

সিএম/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm