কাগতিয়ার পীর মুনিরুল্লাহ ‘ভণ্ড’

কাগতিয়ার পীর মুনিরুল্লাহ একজন ভণ্ড পীর। তার অনুসারীরা তরিকতের নামে রাউজানে সন্ত্রাসের রাজত্ব কায়েম করছে। তাদের হামলায় কিশোর নাইম উদ্দিন নিহত হয়। মুনিরুল্লাহ ও তার অনুসারীদের হামলার শিকার হয়েছেন বীর মুক্তিযোদ্বা, আওয়ামী লীগ, যুবলীগ, ছাত্রলীগের নেতাকর্মীসহ নিরীহ লোকজন ।

বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) বিকালে রাউজান উপজেলা কার্যলায়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ, যুবলীগের বর্ধিত সভায় বক্তারা এসব কথা বলেন ।

আরও পড়ুন: মাওলানার ‘শিশু বলাৎকার’—ইজ্জত বাঁচাতে যুবককে ‘চাঁদাবাজি’ মামলা!

বক্তারা আরও বলেন, রাউজানবাসীর প্রতিরোধের কারণে কাগতিয়ার পীর মুনিরুল্লাহ ও তার অনুসারীরা দীর্ঘদিন নীরব থাকলেও আবারো তারা এলাকায় সক্রিয় হওয়ার পাঁয়তারা শুরু করেছে। তাদের এই অপতৎপতা রাউজানবাসী আবারও প্রতিরোধ করবে।

সভায় সভাপতিত্ব করেন রাউজান উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্বা কাজী আবদুল ওহাব। উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক রাউজান পৌরসভার কাউন্সিলর বশির উদ্দিন খানের সঞ্চালনায় বক্তব্য রাখেন রাউজান উপজেলা চেয়ারম্যান এহেসানুল হায়দার বাবুল, রাউজান পৌরসভার মেয়র জমির উদ্দিন পারভেজ, উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অধ্যক্ষ কফিল উদ্দিন চৌধুরী, উপজেলা আওয়ামী লীগের সিনিয়র সহসভাপতি আনোয়ারুল ইসলাম, কাজী ইকবাল, স্বপন দাশগুপ্ত, শাহ আলম চৌধুরী, রাউজান পৌরসভা আওয়ামী লীগ সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী, সহসভাপতি পৌর কাউন্সিলর জসিম উদ্দিন চৌধুরী, আওয়ামী লীগ নেতা তসলিম উদ্দিন, রবিন্দ্র লাল চৌধুরী ও চেয়ারম্যান আবদুল জব্বার সোহেল।

আরও পড়ুন: ‘হুজুরের ইয়াবাবাণিজ্য’—২৯ হাজার ইয়াবাসহ ২ কারবারি পুলিশের জালে

এতে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আব্বাস উদ্দিন আহম্মদ, বিএম জসিম উদ্দিন হিরু, পৌর কাউন্সিলর অ্যাডভোকেট সমীর দাশগুপ্ত, সুমন দে, আহসান হাবিব চৌধুরী, তপন দে, হাসান মোহাম্মদ রাসেল, জিয়াউল হক রোকন, আবু সালেক, জিল্লুর রহমান মাসুদ ও সাখাওয়াত হোসেন পিবলু।

সভা শেষে আওয়ামী, যুবলীগ ও ছাত্রলীগ নেতাকর্মীরা বিক্ষোভ মিছিল বের করেন। মিছিলটি বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ সড়ক প্রদক্ষিণ করে। মিছিল শেষে মুনিরুল্লাহর কুশপুত্তলিকা দাহ করা হয়

শফি/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm