৭ চেকপোস্ট—৯ ম্যাজিস্ট্রেটের ‘কড়া নজর’ থাকবে চট্টগ্রাম শহরে

লকডাউন বাস্তবায়নে চট্টগ্রাম জেলার সাত প্রবেশপথে বসবে চেকপোস্ট। নগরজুড়ে পুলিশের পাশাপাশি টহলে থাকবে সেনাবাহিনী, বিজিবি ও র‌্যাব।

করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির জরুরি সভায় এ তথ্য তুলে ধরেন চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসক মো. মমিনুর রহমান। বুধবার (৩০ জুন) সন্ধ্যায় চট্টগ্রাম সার্কিট হাউসের এ সভায় সভাপতিত্বও করেন তিনি।

সভায় জেলা প্রশাসক বলেন, সরকারঘোষিত বিধিনিষেধ যথাযথভাবে পালন করতে চট্টগ্রামের সাত প্রবেশ পথ যথাক্রমে সাতকানিয়ার কেরাণীহাট, ফৌজদারহাট, জোরারগঞ্জ, নগরের অক্সিজেন, কাপ্তাই রাস্তার মাথা, মইজ্যার টেক ও বায়েজিদ লিঙ্ক রোড এলাকায় পুলিশের উদ্যোগে চেকপোস্ট বসানো হবে।

তিনি বলেন, মাঠে থাকছেন জেলা প্রশাসনের ১২ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। সেনাবাহিনী, বিজিবি, র‌্যাব, পুলিশ ও আনসারের পাশাপাশি ১০০ জন স্বেচ্ছাসেবক জেলা প্রশাসনকে সহযোগিতা করবেন। জরুরি প্রয়োজন ছাড়া কেউ ঘর থেকে বের হলেই ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Yakub Group

সভায় অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ছিলেন জেলা পুলিশ সুপার এসএম রশিদুল হক, বিজিবির পরিচালক আহমদ হাসান জামিল, সিএমপির ডিসি (ক্রাইম) জয়নুল আবেদীন, ট্রাফিকের মু. আলী হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (রাজস্ব) মো. নাজমুল আহসান, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) আ স ম জামশেদ খন্দকার, এডিসি (এলএ) মাসুদ কামাল, জেলা কমান্ডার আশরাফ হোসেন সিদ্দিক, সিএমপির এডিসি শেখ সাব্বির হোসেন, র‌্যাব-৭ এর উপ-পরিচালক মেজর মো. মুশফিকুর রহমান, মেজর গোলাম কিবরিয়া খন্দকার, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার (ডিএসবি) আবদুল্লাহ-আল-মাসুম ও জেলা তথ্য কর্মকর্তা মো. সাঈদ হাসান।

জানা যায়, লকডাউনে নগরে কড়া নজর থাকবে নয় ম্যাজিস্ট্রেটের। এর মধ্যে বাকলিয়া-চকবাজার এলাকায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মাসুমা জান্নাত, খুলশী এলাকায় ইনামুল হাসান, কোতোয়ালী এলাকায় মো. উমর ফারুক, বায়েজিদ এলাকায় জিল্লুর রহমান, পাঁচলাইশ-চান্দগাঁও এলাকায় রেজওয়ানা আফরিন, হালিশহর এলাকায় মাসুদ রানা, বন্দর-ডবলমুরিং এলাকায় নূরজাহান আকতার সাথী, আকবরশাহ-পাহাড়তলী এলাকায় ফাহমিদা আফরোজ এবং বায়েজিদ এলাকায় প্লাবন কুমার বিশ্বাস দায়িত্ব পালন করবেন।

আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm