মাঠ থেকে টিভি, মাঝের ৩০ সেকেন্ডেই কোটি টাকা হাতিয়ে নেয় জুয়াড়িরা

কোনো ক্রিকেট ম্যাচ মাঠ থেকে সরাসরি টেলিভিশনে সম্প্রচারিত হতে ৩০ থেকে ৪০ সেকেন্ড সময় লাগে। আর এই সময়টাকেই কাজে লাগিয়ে জুয়াড়িরা হাতিয়ে নিচ্ছে কোটি কোটি টাকা!
আইপিএল চলাকালে ম্যাচ গড়াপেটা করার এ প্রক্রিয়া দেখে অবাক ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের অপরাধ দমন শাখার আধিকারিক ও দিল্লি পুলিশ! এ কাজে জড়িত থাকায় গ্রেফতার করা হয়েছে অরুণ জেটলি স্টেডিয়ামের দুই সাফাই কর্মীকে। গত ২ মে রাজস্থান রয়্যালস ও সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের ম্যাচ চলাকালে তারা প্রতি বলে গড়াপেটা করছিলেন।
প্রশ্ন হলো- কীভাবে চলছিল এই গড়াপেটা? কোনো ক্রিকেট ম্যাচের সরাসরি সম্প্রচার টেলিভিশনে দেখতে ৩০ থেকে ৪০ সেকেন্ড অপেক্ষা করতে হয় দর্শকদের। ধরুন, আইপিএলের কোনো ম্যাচে ভুবেনশ্বর কুমার ইনিংসের প্রথম ওভার শুরু করছেন। আর প্রথম বলেই রোহিত শর্মা বোল্ড হয়ে গেলেন। গ্যালারিতে থাকা দর্শকরা রোহিতের আউট হওয়ার ঘটনা সঙ্গে সঙ্গে দেখতে পেলেও, টেলিভিশনের সামনে থাকা দর্শকরা আউট হওয়ার সেই দৃশ্য দেখবেন ৩০ কিংবা ৪০ সেকেন্ড পরে।
টিভিতে সেই দৃশ্য ভেসে ওঠার আগেই মুঠোফোনে কয়েকটি অ্যাপের মাধ্যমে মেসেজ করে মাঠে থাকা ব্যক্তি তাঁর দলের পাণ্ডাকে পৌঁছে দেয় খবর। আর এই কয়েক সেকেন্ডের ফারাককে কাজে লাগিয়ে জুয়াড়িরা হাতিয়ে নেয় কোটি কোটি টাকা! এবার দর্শকশূন্য আইপিলে ম্যাচ গড়াপেটায় স্টেডিয়ামের দুই সাফাইকর্মীকে কাজে লাগিয়েছিল জুয়াড়িরা। মুঠোফোনের কয়েকটি অ্যাপের সাহায্যে ওই দুজন জুয়া খেলছিল। যদিও তাঁদের শেষ রক্ষা হয়নি।
ভারতীয় বোর্ডের অপরাধ দমন শাখার প্রধান সাব্বির হোসেন শেখকদম খান্ডেলওয়াল বলেন, স্টেডিয়ামের দুই সাফাই কর্মীর হাতে অত্যাধুনিক মোবাইল ও তাদের কার্যকলাপ দেখে আমার দুই আধিকারিকের সন্দেহ হয়েছিল। ওদের জিজ্ঞাসবাদের জন্য আটক করার পর বেরিয়ে এল থলের বেড়াল। পরে ওদের আধার কার্ড ও মোবাইল বাজেয়াপ্ত করে দিল্লি পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। দিল্লি পুলিশ অনেক দিন ধরেই এমন একটা দলকে খুঁজছিল।
আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm