‘চসিক সচিবের কাণ্ড’—শোক দিবসে প্লাস্টিকের ফুল দেখে ‘অগ্নিমূর্তি মেয়র’

জাতীয় শোক দিবসে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশনের (চসিক) সামনে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানানোর আয়োজন চলছিল। শ্রদ্ধা জানানোর জন্য চসিক মেয়র রেজাউল করিমের হাতে তুলে দেওয়া হলো ফুল। কিন্তু ফুল হাতে নিয়েই ‘অগ্নিমূর্তি’ মেয়র। এ যে প্লাস্টিকের ফুল!

জাতির পিতাকে প্লাস্টিকের ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানো হবে?— রেগে বললেন মেয়র।

জাতীয় শোক দিবসে চসিক সচিব খালেদ মাহমুদের ‘প্লাস্টিক ফুল’ কাণ্ডে হতবাক উপস্থিত সবাই। এদিকে মেয়র বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদনের স্থান থেকে চলে গেলেন চসিকে অফিসে মিলাদ মাহফিলে।

আরও পড়ুন: ‘ক্ষমতার দাপট’—মেয়রের সচিবের সম্পদের পাহাড়, মাঠে নামল দুদক

এদিকে এ ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী বেশ কয়েকজন কাউন্সিল। এদের মধ্যে একজন মন্তব্য করলেন— শোক দিবসের এ আয়োজনে চসিক সচিবের প্লাস্টিকের ফুলের তোড়া আনাকে ‘অশ্রদ্ধার মানসিকতা’। তবে আলোকিত চট্টগ্রামের কাছে চসিক সচিব খালেদ মাহমুদ পুরো বিষয়টিকে উড়িয়ে দিয়েছেন ‘মিথ্যা’ বলে।

জানা যায়, রোববার ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবস ও জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাতবার্ষিকী উপলক্ষে মেয়র এম রেজাউল করিম চৌধুরী টাইগারপাসের চসিকের সামনে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরালে শ্রদ্ধা জানাতে যান।

এ সময় মেয়র দেখতে পান, চসিকের পক্ষ থেকে ফুলের যে তোড়াটি হাতে হয়েছে তা প্লাস্টিক ফুল দিয়ে বানানো। মেয়র এটি দেখে রেগে যান। জানতে চান, প্লাস্টিকের ফুল কেন?
মেয়র তৎক্ষণাৎ নির্দেশ দেন, প্রাকৃতিক ফুলের তোড়া আনার। এরপর তিনি বঙ্গবন্ধু ও ১৫ আগস্ট শহীদদের স্মরণে মিলাদ মাহফিলে যোগ দেন। প্রায় আধঘণ্টা পর ফুলের তোড়া আনা হলে সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা জানান মেয়র রেজাউল করিম।

চসিক সূত্রে জানা যায়, জাতীয় শোক দিবসে ফুলের তোড়াটি চসিক সচিবের তত্ত্বাবধানেই ছিল।

আরও পড়ুন: বাঙালি হৃদয়ের আর্তিতে লেখা অশ্রু ঝরানো লিপিকা

এ ব্যাপারে দৃষ্টি আকর্ষণ করা হলে চসিক সচিব খালেদ মাহমুদ এ রকম কোনো ঘটনা ঘটেনি বলে উড়িয়ে দেন। তিনি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, কে বলল এসব কথা? এরকম কোনো ঘটনা ঘটেনি।

একপর্যায়ে তিনি রেগে গিয়ে বলেন, এগুলো পুরোটাই মিথ্যা কথা, সব ঠিকঠাকভাবে হয়েছে। তোড়ায় কোন প্লাস্টিকের ফুল ছিল না। তবে এ বিষয়ে আমার কথা বলার রাইট নেই। চসিক থেকে যিনি কথা বলেন, তিনি এ বিষয়ে বলবেন। আপনি পিআরও’র সঙ্গে কথা বলেন।

চসিকের জনসংযোগ কর্মকর্তা আবুল কালামের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, এগুলো ঠিক না। এমন কিছু হয়নি। ফুল হাতের কাছে যেটি ছিল সেটিই দেওয়া হয়েছে।

আলোকিত প্রতিবেদক পুরো ঘটনার ভিডিও এবং প্লাস্টিক ফুলের তোড়ার ছবি রয়েছে জানালে আবুল কালাম বলেন, আপনাদের কাছে যা আছে, তাই তো লিখবেন। আমি আর এ বিষয়ে কী বলবো?

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm