৪ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ বন্ধ౼পটিয়ায় ব্যালট ছিনতাই, লোহাগাড়ায় প্রার্থীর ওপর হামলা

চতুর্থ ধাপে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে পটিয়া, কর্ণফুলী ও লোহাগাড়া উপজেলায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হচ্ছে। এরমধ্যে পটিয়ার ৩ এবং লোহাগাড়ার ১ কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।

লোহাগাড়া

রোববার (২৬ ডিসেম্বর) বেলা ১২টার দিকে বল মার্কার জিয়াবুল হোসেনের ওপর হামলা চালায় মোরগ মার্কার মেম্বার প্রার্থী শহীদুল ইসলামের অনুসারীরা। এ সময় জিয়াবুলের ভাই আখতার কামালকে মারধর করা হয়। এতে ফরিয়াদেরকুল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রের ভোটগ্রহণ কার্যক্রম বন্ধ রাখা হয়।

বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রের প্রিসাইডিং কর্মকর্তা মোসলেম উদ্দিন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, কিছু উচ্ছৃঙ্খল ছেলে এসে কেন্দ্রে ঝামেলা সৃষ্টি করে। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসে। এরপর ভোটগ্রহণ বন্ধ রাখা হয়েছে।

আরও পড়ুন : ভোটের দিনই মারা গেলেন প্রার্থী

পটিয়া

উপজেলার দুই ইউনিয়নের তিন কেন্দ্রে ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। এরপর স্থগিত করা হয়েছে ভোটগ্রহণ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. আরাফাত আল হোসাইনী। তিনি আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ছনহরা ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের চাটারা কেন্দ্র, ৮ নম্বর ওয়ার্ডের ধাউরডেঙ্গা কেন্দ্র এবং জিরি ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের সাঁইদার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে দুর্বৃত্তরা ব্যালট পেপার ছিনিয়ে নিয়ে যায়। এরপর ভোটগ্রহণ স্থগিত রাখা হয়েছে। ঘটনাস্থলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা আছেন। পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে ভোটগ্রহণ আবারো শুরু হবে।

আলোকিত চট্টগ্রাম
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm