২২ বছর পর ১০ বছরের সাজা—খায়ের লাপাত্তা

২২ বছর পর অস্ত্র মামলায় আবুল খায়ের নামে এক আসামিকে ১০ বছর কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হয়েছে।

সোমবার (২৪ জুন) চট্টগ্রাম নবম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ মো. মঞ্জুর হোসেন এ রায় দেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে জেলা পিপি অ্যাড. শেখ ইফতেখার সাইমুল চৌধুরী আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন,  ফটিকছড়ির বাসিন্দা আবুল খায়েরকে অস্ত্র আইনের ১৯(এ) ধারায় ১০ বছর ও ১৯(এফ) ধারায় ৭ বছর সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। উভয় সাজা একসঙ্গে চলার কারণে ১০ বছরের কারাভোগ করতে হবে দণ্ডপ্রাপ্ত আসামির। তবে রায় ঘোষণার সময় আসামি উপস্থিত না থাকায় তার বিরুদ্ধে সাজা পরোয়ানামূলে গ্রেপ্তারের নির্দেশ দিয়েছেন আদালত।

মামলার অভিযোগ থেকে জানা যায়, ২০০২ সালে ৭ মে আবুল খায়েরের কাছে থাকা একটি পলিব্যাগ থেকে দুটি দেশীয় তৈরি এলজি ও ১০টি কার্তুজ উদ্ধার করে ফটিকছড়ি থানা পুলিশ। এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে মামলা করেন। মামলায় ১০ জনকে সাক্ষী করা হয়। পরে আবুল খায়েরকে একমাত্র আসামি করে চার্জশিট দেয় পুলিশ।

দীর্ঘ ২২ বছরের এ মামলায় ১০ জন সাক্ষীর মধ্যে ছয় জন সাক্ষীর সাক্ষ্য উপস্থাপন করে রাষ্ট্রপক্ষ।

আরএস/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!