২০ স্টলে ৪০ রকমের পিঠার পসরা

সীতাকুণ্ডে প্রতি বছরের মতো এবারও ব্যাপক উৎসাহ-উদ্দীপনায় অনুষ্ঠিত হয়েছে পিঠা উৎসব। এ উৎসবে ২০টির বেশি স্টলে ৪০ রকম পিঠা উপস্থাপন করা হয়।

বৃহস্পতিবার (১০ মার্চ) সকাল ৯টায় সীতাকুণ্ড সরকারি মহিলা কলেজে এই পিঠা উৎসবের আয়োজন করা হয়। শিক্ষার্থীরা ঘরে তৈরি নানারকম পিঠা নিয়ে উৎসবে অংশ নেয়। এ সময় দর্শনার্থীরা সেখানে ভিড় জমান।

এদিকে প্রধান অতিথি হিসেবে দিনব্যাপী পিঠা উৎসবের উদ্বোধন করেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহাদাত হোসেন।

আরও পড়ুন: ৩৫ স্টল নিয়ে সীতাকুণ্ডে প্রাণিসম্পদ প্রদর্শনী

এ সময় উপস্থিত ছিলেন সীতাকুণ্ড সরকারি মহিলা কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মো. দিদারুল আলম, যুব উন্নয়ন কর্মকর্তা মো. শাহ্ আলম, সহকারী অধ্যাপক মো. মহিউদ্দীন, সিনিয়র প্রভাষক বনানী দত্ত, সুকদেব রুদ্র, সেলিনা বেগম, সেলিনা আক্তার, নাজলী শফিক, মো. শাহজাহান, মো. ইমাম হোসাইন, মো. সিরাজ উদ্দিন ও উজ্জল কান্তি দাশ।

আরও উপস্থিত ছিলেন প্রভাষক মো. আবু মোজাম্মেল হক, প্রবীর নন্দী, ইয়াসমিন বেগম, মো. সুমন, মোসা. শাহনাজ খান, সাবিনা আক্তার, গোলাম সারোয়ার ও রূপনা মজুমদার।

উৎসবে ভাপা, পুলি, নার্কেল বর, শীতল, পাটিসাপটা, ফুল, চিতল, চালের জালা পিঠাসহ বিভিন্নরকম পিঠা উপস্থাপন করে শিক্ষার্থীরা।

আরও পড়ুন: নৌকার আদলে মঞ্চ, বসেছে ১১০ স্টল—মিরসরাইয়ে বিজয় মেলায় শত আয়োজন

পরে উৎসবে অংশ নেওয়া পিঠার স্টলগুলো পরিদর্শন করেন প্রধান অতিথি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. শাহাদাত হোসেন।

এ সময় তিনি বলেন, পিঠা উৎসব বাঙালির হাজার বছরের সংস্কৃতির একটি অংশ। এই উৎসবগুলো আবহমান বাংলার দেশের নতুন প্রজন্মকে পূর্বের হারিয়ে যাওয়া সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় করিয়ে দেয়। পিঠা উৎসবে অংশগ্রহণকারীরা গ্রামীণ ঐতিহ্যকে সবার মাঝে তুলে ধরেছে। তাদের এই আয়োজন আমাকে মুগ্ধ করেছে।

সালাউদ্দিন/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm