ডুলাহাজারা সাফারি পার্ক—১৮ বছর পর হারিয়ে গেল সিংহরাজ

কক্সবাজারের চকরিয়ার ডুলাহাজারার বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের সিংহরাজ ‘সোহেল’ মারা গেছে।

বুধবার (২৪ ফেব্রুয়ারি) বিকালে পার্কের সিংহের বেষ্টনীতে মারা যায় ‘সোহেল’। বিগত ৩-৪ বছর ধরে সিংহরাজ ‘সোহেল’ বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিল।

আরও পড়ুন: পানি না আসার কারণ খুঁজতে গিয়ে হারিয়ে গেলেন প্রবাসীর স্ত্রী

এদিকে সিংহরাজ ‘সোহেলের’ মৃত্যুর ঘটনায় চকরিয়া থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন পার্কের তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম।

Yakub Group

জিডিতে তিনি উল্লেখ করেন, সাফারি পার্কের বয়স্ক সিংহ ‘সোহেল’ বুধবার বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে মারা যায়। চকরিয়া উপজেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. সুপন নন্দী, পার্কের ভেটেরেনারি সার্জন ডা. হাতেম সাজ্জাত ও মো. জুলকার নাইন মৃত সিংহের ময়নাতদন্ত করেন। ময়নাতদন্ত শেষে রাতেই পার্কের একটি নির্জন সোহেলকে জায়গায় মাটিচাপা দেওয়া হয়।

সাফারি পার্ক সূত্রে জানা যায়, ২০০৪ সালে চার বছর বয়সে সিংহরাজ ‘সোহেলকে’ পার্কে আনা হয়। দীর্ঘ ১৮ বছর পর ২২ বছরের মাথায় তার মৃত্যু হয়েছে। গত ৩-৪ বছর ধরে ‘সোহেল’ বার্ধক্যজনিত সমস্যায় ভুগছিল। বেশ কয়েক মাস ধরে সিংহটিকে পার্কের ভেটেরেনারি হাসপাতালে পর্যবেক্ষণে রাখা হয়েছিল।

আরও পড়ুন: পুলিশ খুঁজে দিল ব্যাংকারের হারিয়ে যাওয়া লাখ টাকা

এ বিষয়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কের তত্ত্বাবধায়ক মো. মাজহারুল ইসলাম আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, সিংহটি ২০০৪ সালে ঢাকার মিরপুরের জাতীয় চিড়িয়াখানা থেকে চার বছর বয়সে ডুলাহাজারা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব সাফারি পার্কে আনা হয়েছিল। বার্ধক্যের উল্লেখযোগ্য সব লক্ষণ সিংহটির শরীরে ক্রমান্বয়ে প্রকাশ পাচ্ছিল। ২০১৯ ও ২০২০ সালে চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এ্নিম্যাল সাইন্সেস বিশ্ববিদ্যালয়ের চারজন শিক্ষক পৃথকভাবে তার চিকিৎসা করেন। তারাও সিংহটির আয়ুষ্কাল শেষের দিকে বলে জানিয়েছিলেন।

মুকুল/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm