হাতের নাগালে করোনার ওষুধ, দাম কত—কতটা কার্যকর

দেশে করোনার মুখে খাওয়ার ওষুধ মলনুপিরাভির জরুরি বাজারজাতকরণের অনুমোদন দিয়েছে ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তর। শীর্ষস্থানীয় ওষুধ কোম্পানি এসকেএফকে ও বেক্সিমকো মলনুপিরাভির জরুরি বাজারজাতের অনুমোদন পেয়েছে।

মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমান প্রেস ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান।

মাহবুবুর রহমান বলেন, এসকেএফকে ও বেক্সিমকোর পাশাপাশি  মলনুপিরাভির জরুরি বাজারজাতের অনুমোদন দেওয়া হয়েছে। অনুমোদনের তালিকায় আছে আরও আটটি ওষুধ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান।

প্রতিটি ক্যাপসুলের দাম কত?

মহামারী করোনার চিকিৎসায় সুনির্দিষ্ট কোনো ওষুধ ছিল না। গত সপ্তাহে ‘মলনুপিরাভির’ নামের ওষুধের অনুমোদন দেয় যুক্তরাজ্য সরকার। এরপর থেকেই ক্যাপসুলটি দেশে উৎপাদনের প্রক্রিয়া শুরু হয়।

অ্যান্টিভাইরাল ওরাল পিল বা মুখে খাওয়ার ওষুধ মলনুপিরাভি। যার জেনেরিক সংস্করণের নাম ‘অ্যামোরিভির’। ওষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মাহবুবুর রহমান জানান, বাংলাদেশে প্রতিটি ক্যাপসুলের দাম ধরা হয়েছে ৫০ টাকা।

আরও পড়ুন: করোনার টিকা—ইনজেকশন পুশ ছাড়াই কার্যকর শতভাগ!

Thai Food

তবে বেক্সিমকো ফার্মার চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও) রাব্বুর রেজা একটি গণমাধ্যমকে বলেন, মুখে খাওয়ার প্রতিটি ক্যাপসুলের বাজার মূল্য ধরা হয়েছে ৭০ টাকা। বেক্সিমকো ফার্মাসিউটিক্যালস এই ওষুধটির নাম দিয়েছে ‘এমোরিভির ২০০’।  চিকিৎসকের পরামর্শে ১৮ বছরের বেশি বয়সী করোনা আক্রান্ত রোগীকে সংক্রমণ প্রতিরোধে ৪০টি ক্যাপসুল খেতে হবে।

ঢাকার ১৫০টি ফার্মেসিতে সোমবার (৮ নভেম্বর) এ ওষুধ পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন বিভাগে আজ (৯ নভেম্বর) পাঠানো হবে। যেসব এলাকার মানুষ এখন বেশি করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন, সেসব এলাকায় এ ওষুধ পাঠানো হবে।

যৌথভাবে তৈরি মলনুপিরাভির পরীক্ষা হয়েছে ১৭ দেশে

যৌথভাবে মলনুপিরাভির তৈরি করেছে যুক্তরাজ্যের ওষুধ কোম্পানি মার্ক ও রিজব্যাক বায়োথেরাপিউটিক। বিশ্বের ১৭টি দেশে ওষুধটির ওপর পরীক্ষা হয়েছে। যে তালিকায় রয়েছে যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, কানাডা, ফ্রান্স, জার্মানির মতো দেশ। ৪ নভেম্বর ওষুধটির অনুমোদন দেয় যুক্তরাজ্যের নিয়ন্ত্রণকারী প্রতিষ্ঠান ইউনাইটেড কিংডম মেডিসিনস অ্যান্ড হেলথকেয়ার প্রোডাক্টস রেগুলেটরি অথোরিটি। মলনুপিরাভির অনুমোদন দেওয়ার বিষয়ে পর্যালোচনা করছে ইউরোপিয়ান মেডিসিন এজেন্সি ও যুক্তরাষ্ট্রের ফুড অ্যান্ড ড্রাগ অ্যাডমিনিস্ট্রেশন (এফডিএ)।

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়, অকার্যকর করে ভাইরাসের প্রজনন ক্ষমতা

মলনুপিরাভির প্রস্ততকারীদের দাবি, বাজারে বর্তমানে করোনা রোগীদের চিকিৎসার জন্য বেশকিছু ওষুধ ব্যবহার করা হচ্ছে। সেগুলোর মূল কাজ মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করা, ভাইরাসকে অকার্যকর করা নয়। এক্ষেত্রে মলনুপিরাভিরই বিশ্বে প্রথম এবং একমাত্র ওষুধ যা মানুষের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করার পাশাপাশি ভাইরাসের প্রজনন ক্ষমতা অকার্যকর করতে সক্ষম।

এ পর্যন্ত তিনটি মেডিকেল ট্রায়াল পার করেছে মলনুপিরাভির। প্রতিটি ট্রায়ালেই রোগীর শারীরিক অবস্থার লক্ষ্যণীয় উন্নতি দেখা গেছে।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm