দ্রব্যমূল্য কমায় জনগণ স্বস্তিতে থাকলেও অস্বস্তিতে বিএনপি, তাই বাম ভাইদের দিয়ে হরতাল : তথ্যমন্ত্রী

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বাজারে দ্রব্যমূল্য কমায় জনগণ স্বস্তি ফিরে পেলেও বিএনপি অস্বস্তিতে পড়েছে।

মঙ্গলবার (২৯ মার্চ) দুপুরে রাঙ্গুনিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ কথা বলেন।

তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রী বলেন, স্বল্পমূল্যে পণ্য বিক্রির জন্য প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা টিসিবির মাধ্যমে এক কোটি মানুষকে ফ্যামিলি কার্ড দিয়েছেন। এক কোটি ফ্যামিলি কার্ড মানে পাঁচ কোটি মানুষ। বাজারে দ্রব্যমূল্যও কমে গেছে। দ্রব্যমূল্যের দাম কমায় জনগণের মধ্যে স্বস্তি ফিরেছে। জনগণের মধ্যে যখন স্বস্তি ফিরে এসেছে তখন বিএনপির অস্বস্তি বেড়ে গেছে। তারা সেজন্য বাম ভাইদের দিয়ে হরতাল ডাকলেন।

আরও পড়ুন: বিএনপির মধ্যে রোগ দেখা দিয়েছে : তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ

দ্রব্যমূল্য নিয়ে বিএনপি একদিকে জনমনে বিভ্রান্তি ছড়ানো ও অপরদিকে অসাধু ব্যবসায়ীদের উস্কে দেওয়ার দ্বিচারিতা করছে উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিএনপির কাজই বিভ্রান্তি ছড়ানো। পদ্মা সেতু নির্মাণের শুরুতে বিএনপি ছেলেধরা গুজব ছড়িয়েছিল। এই সরকার পদ্মাসেতু করতে পারবে না বলেছিল। আজকে পদ্মা সেতু হয়ে গেছে, উদ্বোধনের অপেক্ষায়। বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনা সেতুর ওপর গাড়ি চালিয়ে এপার থেকে ওপারে গেছেন।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, বিএনপি টিকা নিয়েও বিভ্রান্তি ছড়িয়ে পরে নিজেরাই কেউ গোপনে, কেউ লজ্জা-শরম ভেঙে জনসম্মুখে টিকা নিয়েছেন। সুতরাং বিএনপি যাদের টেলিভিশনের পর্দা ছাড়া দেশে খুঁজে পাওয়া যায় না, তাদের কথায় বিভ্রান্ত হবেন না।

প্রধানমন্ত্রীর নেতৃত্বে সংগঠনকে শক্তিশালী করার জন্য সারাদেশে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন নেতৃত্ব বেরিয়ে আসছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, আগামী নির্বাচনে আমরা আবারও ২০০৮-এর মতো ধস নামানো বিজয় নিশ্চিত করবো বলে দৃঢ় আশা রাখি।

আরও পড়ুন: খালেদা জিয়াকে রাজনৈতিক উদ্দেশ্যে বিদেশ পাঠাতে চায় বিএনপি : তথ্যমন্ত্রী

রাঙ্গুনিয়ায় আওয়ামী লীগ শক্ত ভিতের ওপর দাঁড়িয়ে আছে উল্লেখ করে তিনি আরও বলেন, জনগণকে মনে করিয়ে দিতে হবে ১৩ বছর আগে দেশের কী পরিস্থিতি ছিল। ভাতা এবং উপকারভোগী অনেক বেড়েছে। প্রতিটি ইউনিয়নে দেড় থেকে দুই হাজার মানুষ ভাতা পাচ্ছে, অনেক রাস্তাঘাট হয়েছে। এগুলো তুলে ধরতে হবে।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি আবদুল মোনাফ সিকদারের সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক ইঞ্জিনিয়ার শামসুল আলম তালুকদারের সঞ্চালনায় সভায় উপস্থিত ছিলেন চট্টগ্রাম উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও উপজেলা চেয়ারম্যান স্বজন কুমার তালুকদার, সবেক চেয়ারম্যান ও সিডিএ মেম্বার মো. আলী শাহ, রাঙ্গুনিয়া পৌর মেয়র শাহাজাহান শিকদার, আবুল কাশেম চিশতি, পোমরা ইউপি চেয়ারম্যান জহির আহমেদ চৌধুরী, রাঙ্গুনিয়া পৌরসভা আওয়ামী লীগ সভাপতি মাস্টার আসলাম খাঁন, উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক এমরুল করিম রাশেদ, কমিশনার জসিম উদ্দিন শাহ ও হালিম আবদুল্লাহ।

মতিন/আরবি

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm