স্বামীর ছুরিকাঘাত—রক্তাক্ত স্ত্রী মৃত্যুর সঙ্গে লড়ছে হাসপাতালে

আনোয়ারা উপজেলার হাইলধর ইউনিয়নের হেটিখাইন গ্রামে স্বামীর ছুরিকাঘাতে শান্তা আক্তার (২০) নামের এক গৃহবধূ গুরুতর আহত হয়েছেন।

মুমূর্ষু অবস্থায় শান্তা আক্তারকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে।

বুধবার (২৫ আগস্ট) রাতে এ ঘটনা ঘটেছে। যৌতুকের কারণে শাকিল তার স্ত্রীকে ছুরির আঘাত করেছে বলে জানা গেছে।
এ ব্যাপারে আনোয়ারা থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন আছে।

আরও পড়ুন: ‘রক্তাক্ত লাশ’ সাতকানিয়ায় নিজ ঘরেই, হত্যা—আত্মহত্যায় দুলছে

স্থানীয়রা জানান, ৫ মাস আগে আনোয়ারা গুজরা গ্রামে আবু তাহেরের ছেলে শাকিল ও হেটিখাইন গ্রামের মৃত আবুল কাশেমের মেয়ে শান্তা আক্তার ভালবেসে বিয়ে করেছিলেন। প্রেম করে বিয়ে করলেও তাদের সুখের সংসার হয়নি। বিয়ের কিছুদিন পর থেকে শাকিল যৌতুকের জন্য চাপ দিতে থাকে শান্তাকে। যৌতুক দিতে ব্যর্থ হলে শান্তা আক্তার বাপের বাড়িতে চলে যান। সেখানে গিয়েও শেষ রক্ষা হয়নি। গত বুধবার রাতে স্বামী শাকিল শ্বশুর বাড়িতে গিয়ে স্ত্রীকে গলায় ও হাতে মারাত্মকভাবে ছুরিকাঘাত করে দ্রুত স্থান ত্যাগ করে। স্বজনরা শান্তাকে আহত অবস্থায় চমেক হাসপাতালে ভর্তি করান।

শান্তার ভাই হাবিবুর রহমান বলেন, আমার বোনের অবস্থা সংকটাপন্ন। ঘটনার পর শাকিল ফেসবুকে লাইভে এসে আমাদের হুমকি দিচ্ছে।

আনোয়ারা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এসএম দিদারুল ইসলাম সিকদার ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, স্বামীর হামলায় স্ত্রী আহতের ঘটনায় থানায় মামলা প্রক্রিয়াধীন। পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।

ইমরান/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm