স্ত্রীকে খুন করে নিজের পেটে ছুরি চালালেন স্বামী

সীতাকুণ্ডে স্ত্রীকে খুন করে নিজের পেটে ছুরি চালিয়েছেন স্বামী। দু’দিনের ব্যবধানে ঘটেছে এমন ঘটনা। তাদের সংসারে দুই কন্যা সন্তান রয়েছে।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, সীতাকুণ্ড পৌরসভার মৌলভীপাড়া এলাকার মো. আবুল বশরের মেয়ে পিয়ারু বেগম (৩৫)। আট বছর আগে সন্দ্বীপের রহমতপুর গ্রামের মো. মোস্তফার ছেলে ওমর শরীফের (৪৫) সঙ্গে তার বিয়ে হয়। তাদের সংসারে চার ও ছয় বছরের দুই কন্যা সন্তান রয়েছে।

এদিকে বেশ কিছুদিন ধরে স্ত্রী পিয়ারুর সঙ্গে স্বামী ওমরের বিভিন্ন বিষয়ে মতানৈক্য চলছিল। এরপর পিয়ারু মুরাদপুর ইউনিয়নের উকিলপাড়া গ্রামে আলাদা ঘরে বসবাস শুরু করেন।

ওমরের সঙ্গে সংসার করবেন না জানিয়ে গত ১৩ জুন ডিভোর্স লেটার পাঠান পেয়ারু। পেয়ারুর এ সিদ্ধান্ত মেনে নিতে পারেননি ওমর। ২৭ জুন সকালে ওমর স্ত্রীকে বুঝিয়ে পুনরায় সংসার করতে বলেন। কিন্তু সংসার করবেন না বলে জানিয়ে দেন পেয়ারু।

এ কথা শুনে ক্ষুব্ধ ওমর স্ত্রীর পেটে ধারালো ছুরি দিয়ে আঘাত করে। এতে পিয়ারুর পেটের নাড়ি-ভুরি বের হয়ে যায়। আশঙ্কাজনক অবস্থায় স্থানীয়রা উদ্ধার করে তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করান। কিন্তু ২৮ জুন সকাল সাড়ে ৬টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান পিয়ারু।

এদিকে ঘটনার দিন রাতে পালিয়ে যান স্বামী ওমর। পালিয়ে গিয়ে তিনি বিষপান করে নিজের পেটে নিজেই ছুরিকাঘাত করেন। তাকেও আশঙ্কাজনক অবস্থায় চমেক হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়। কিন্তু আজ (২৯ জুন) সকাল সাড়ে ৯টার দিকে মারা যান ওমরও।

সীতাকুণ্ড মডেল থানার ওসি মো. আবুল কালাম আজাদ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, দু’দিনের ব্যবধানে স্বামী-স্ত্রী দুজনেই চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা গেছেন।

সালাউদ্দিন

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm