স্ত্রীকে খুন করে নিজের পেটেও ছুরি চালাল স্বামী

সীতাকুণ্ডে পারিবারিক কলহের জেরে স্বামীর ছুরিকাঘাতে খুন হয়েছে স্ত্রী। এ সময় পেটে ছুরি চালিয়ে স্বামী অভি ধরও (২৭) আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

বুধবার (২৭ অক্টোবর) রাত পৌনে ৮টার দিকে পৌরসদরের প্রেমতলা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

খুন হওয়া গৃহবধূর নাম জ্যোতিকা সূত্রধর (২৩)। তিনি ওই এলাকার রামচন্দ্র সূত্রধরের মেয়ে এবং উচ্চ মাধ্যমিকের ছাত্রী।

সীতাকুণ্ড থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এছাড়া আহত অভি ধরকে গুরুতর অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আরও পড়ুন: চাঞ্চল্যকর স্বীকারোক্তি—এসপি বাবুলের নির্দেশেই খুন হন মিতু

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, জ্যোতিকার সঙ্গে প্রায় ২ বছর আগে প্রেম করে বিয়ে হয় বাঁশখালীর অভি ধরের। তবে এ বিয়ে দুই পরিবারের কেউ মেনে নেননি। এরপর তারা চট্টগ্রাম শহরে ভাড়া বাসায় থাকতেন। পরিবারকে বুঝিয়ে অভি তার স্ত্রীকে শিগগির ঘরে তুলে নেওয়ার আশ্বাস দেন।

Thai Food

কিন্তু অনেক চেষ্টা করেও অভি তার পরিবারকে রাজি করাতে পারেননি। এতে জ্যোতিকা অভিমান করে বাবার বাড়িতে চলে আসেন। অভি শ্বশুড়বাড়ি এসে জ্যোতিকাকে বুঝিয়ে বাসায় নিতে চাইলে তিনি রাজি হননি। এরপর বুধবার রাতে দুজনের এ বিষয়ে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে জ্যোতিকাকে ছুরিকাঘাত করেন অভি এবং নিজেও পেটে ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন

পরে পরিবারের লোকজন ও স্থানীয়রা দুজনকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক জ্যোতিকাকে মৃত ঘোষণা করেন। আর অভির অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় তাকে চমেক হাসপাতালে পাঠানো হয়।

জ্যোতিকার বাবা রামচন্দ্রের উদ্ধৃতি দিয়ে সীতাকুণ্ড থানার ওসি (তদন্ত) সুমন বণিক বলেন, জ্যোতিকা ও অভি প্রেম করে পরিবারের অমতে বিয়ে করে ভাড়া বাসায় বসবাস করছিলেন। কিন্তু অভি নিজ বাড়িতে তুলে না নেওয়ায় জ্যোতিকা তাকে ছেড়ে বাবার বাড়িতে চলে আসেন। বুধবার সন্ধ্যার পর অভি প্রেমতলায় এসে জ্যোতিকাকে নিয়ে যেতে চাইলে তাদের মধ্যে বাকবিতণ্ডা হয়। একপর্যায়ে অভি জ্যোতিকাকে ছুরিকাঘাতে হত্যা করে নিজেও পেটে ছুরি চালিয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেন।

আরও পড়ুন: এক ঘরেই ৩ খুন—মিরসরাইয়ে মা-বাবা-ছোট ভাইকে গলা কেটে হত্যা

তিনি আরো বলেন, অভির অবস্থা আশঙ্কাজনক। নিহত জ্যোতিকার লাশের সুরতহাল তৈরি শেষে ময়নাতদন্তের জন্য চমেক মর্গে পাঠানো হবে। এ বিষয়ে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

সালাউদ্দিন/ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm