হাটহাজারীর কোটিপতি শওকত, সেবকের আড়ালে ইয়াবা বাণিজ্য

ইয়াবার অর্থ যোগানদাতা ও পলাতক আসামি মোহাম্মদ শওকত আলমকে (৪৫) অবশেষে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

শনিবার (২ জুলাই) রাত ১২টার দিকে পাঁচলাইশ শুলকবহর এলাকা থেকে তাকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ ব্যুরো অব ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই)।

আরও পড়ুন: কোটিপতি ইয়াবা ব্যবসায়ী নুর আলম, রোহিঙ্গা হয়েও বাঙালি সেজে ঠাঁই নিল রউফাবাদে

গ্রেপ্তার শওকত আলম হাটহাজারী থানার উত্তর মাদার্শা ২ নম্বর ওয়ার্ডের মৃত শাহআলমের ছেলে। বর্তমানে শুলকবহর ডিজাইন ফয়েজ মেনর এলাকায় বসবাস করছিলেন।

Yakub Group

এদিকে রোববার (৩ জুলাই) শওকতকে আদালতে সোপর্দ করে পাঁচদিনের রিমান্ড আবেদন করলে আদালত দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

পিবিআই সূত্রে জানা যায়, ২০১৮ সালের ৩ মে হালিশহর শ্যামলী আবাসিক এলাকার শান্তিবাগ মসজিদের পাশের একটি বিল্ডিংয়ে অভিযান চালিয়ে ১৩ লাখ ইয়াবাসহ মো. আশরাফ আলী ও মো. হাসান দুই সহোদরকে আটক করে মহানগর গোয়েন্দা পুলিশ (ডিবি)। আটকের পর তাদের বিরুদ্ধে হালিশহর থানায় মামলা করা হয়। তদন্ত শেষে ১২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করলেও শওকতসহ চারজনের পরিচয় শনাক্ত করা সম্ভব হয়নি।

এরপর চলতি বছরের ১৭ এপ্রিল মামলার তদন্তভার পিবিআইয়ে হস্তান্তর করা হয়। পরে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় শওকত আলমকে গ্রেপ্তার করা হয়।

আরও পড়ুন: শুলকবহরে ফার্নিচার দোকানের সামনে ইয়াবা নিয়ে দাঁড়িয়েছিল যুবক

বিষয়টি নিশ্চিত করে পিবিআইয়ের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার জুনায়েদ কাওসার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, পাঁচ বছর আগে হালিশহর শ্যামলী আবাসিক এলাকার শান্তিবাগ মসজিদের পাশের একটি বিল্ডিংয়ে অভিযান চালিয়ে ১৩ লাখ ইয়াবাসহ দুই সহোদরকে আটক করে ডিবি। মামলার তদন্ত কর্মকর্তা ১২ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দাখিল করে। তার মধ্যে ৪ জনের পরিচয় শনাক্ত করা যায়নি। পরে মামলার তদন্তভার পিবিআইয়ে হস্তান্তর করা হলে তথ্যপ্রযুক্তির সহায়তায় ইয়াবার অর্থ যোগানদাতা শওকত আলমকে শুলকবহর এলাকা থেকে গ্রেপ্তার করতে সক্ষম হই।

তিনি আরও বলেন, শওকত দীর্ঘ পাঁচ বছর পলাতক থেকে মিয়ানমার থেকে ইয়াবার বড় চালান সংগ্রহ করে চট্টগ্রামসহ দেশের বিভিন্ন প্রান্তে পাচার করতেন। আজ (রোববার) শওকতকে আদালতে সোপর্দ করে পাঁচদিনের রিমান্ড চাইলে আদালত দুদিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এএইচ/এসআর

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm