সেনাবাহিনী পরিচয়েও শেষ রক্ষা হলো না

লোহাগাড়া ২০ হাজার ইয়াবা এবং সেনাবাহিনীর ভুয়া পরিচয়পত্রসহ এক মাদককারবারিকে আটক করেছে লোহাগাড়া থানা পুলিশ। এ সময় একটি মাইক্রোবাস জব্দ করা হয়।

সোমবার (১৩ ডিসেম্বর) রাত সাড়ে ১০টার দিকে চুনতি রেঞ্জ বন কর্মকর্তার কার্যালয়ের সামনে থেকে তাকে আটক করা হয়।

আটক ব্যক্তির নাম জসিম আহমদ চৌধুরী (৫০)। তিনি কক্সবাজার জেলার চকরিয়া থানার পূর্ব বড় ভেওলা ৩ নম্বর ওয়ার্ডের সিকদারপাড়ার মৃত আহম্মদ হোসেনর ছেলে।

আরও পড়ুন: ইউপিডিএফ—সেনাবাহিনী গোলাগুলি, উদ্ধার হলো একে-৪৭

Yakub Group

পুলিশ জানায়, জসিম আহমদ চৌধুরী নিজেকে সেনাবাহিনীর সিনিয়র ওয়ারেন্ট অফিসার পরিচয় দিয়ে পরিচয়পত্রসহ ছুটির সিসি দেখান। এসময় তার কথায় সন্দেহ হলে গাড়ি থেকে নামিয়ে তল্লাশি করতেই শরীরে লুকানো অবস্থায় ১০ হাজার ইয়াবা পাওয়া যায়। এছাড়া গাড়ির ড্যাশবোর্ড থেকে আরও ১০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার করা হয় ।

পুলিশ আরও জানায়, আটক জসিম আহমদ ২০২০ সালের ১৪ জানুয়ারি কুমিল্লা দাউদকান্দি থানা পুলিশের হাতে মাদকসহ আটক হয়েছিল।

যোগাযোগ করা হলে সাতকানিয়া সার্কেলের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. শিবলী জানান, কক্সবাজার থেকে এক মাদককারবারি ইয়াবা নিয়ে চট্টগ্রাম শহরের দিকে যাচ্ছে- এমন সংবাদে চুনতি বনরেঞ্জ কর্মকর্তার কার্যালয় এলাকার সামনের সড়কে তল্লাশি করা হয়। এ সময় ২০ হাজার ইয়াবাসহ জসিম আহমদ চৌধুরী নামের একজনকে আটক করা হয়।

লোহাগাড়া থানার অফিসার ইনচার্জ জাকের হোসাইন মাহমুদ জানান, সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে জসিম আহমদ চৌধুরী নামের একজনকে ২০ হাজার ইয়াবা আটক করে থানায় নিয়ে আসা হয়। এসময় তার ব্যবহৃত মাইক্রোবাসটি জব্দ করা হয়। উদ্ধারকৃত ইয়াবার মূল্য আনুমানিক ৬০ লাখ টাকা।

আরও পড়ুন: লামায় ত্রিমুখী সংঘর্ষে নিহত ৩, উদ্ধারের মাঠে সেনাবাহিনীও

সেনাবাহিনীর পরিচয়পত্র সম্পর্কে জানতে চাইলে ওসি জানান, তার দেখানো পরিচয়পত্র ও ছুটির সিসিটি সবই নকল।

আটকের বিরুদ্ধে মাদক মামলা দায়ের এবং আদালতের মাধ্যমে তাকে কারাগারে পাঠনো হয়েছে বলে জানান ওসি।

সাত্তার/আরবি

 

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm