সুনামি গতির করোনায় ‘তছনছ’ চট্টগ্রাম

চট্টগ্রামে ভয়ঙ্করভাবে বাড়ছে করোনা। দিন দিন সুনামি গতির করোনা আক্রান্ত তছনছ করে দিচ্ছে চট্টগ্রাম। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন আরও ৯৮৯ জন। এরমধ্যে আঘাত হেনেছে মৃত্যুও।

সর্বশেষ ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ব্যক্তি নগরের বাসিন্দা। এছাড়া আক্রান্তদের ৮২৯ জন নগর এবং ১৬০ জন উপজেলার বাসিন্দা। শনাক্তের হার ছুঁয়েছে ৩০.৯৮ শতাংশ।

আগের দিন আক্রান্তের সংখ্যা ছিল ৭৩৮ জন। শনাক্তের হার ছিল ২৩.৬৮ শতাংশ।

আরও পড়ুন : করোনা : ‘ভয়াবহ’ গতিতে এলোমেলো চট্টগ্রাম

বুধবার (১৯ জানুয়ারি) চট্টগ্রাম সিভিল সার্জন কার্যালয়ের প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

প্রতিবেদন অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় ৩ হাজার ১৯২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়। এরমধ্যে বিআইটিআইডির ল্যাবে ৪৬৭ নমুনায় ১০৫ জন, শেভরনে ৩৮৫ নমুনায় ৭৯ জন, এন্টিজেন টেস্টে ৩৮৪ নমুনায় ১৯৪ জন, ইম্পেরিয়াল হাসপাতালে ৩৬৮ নমুনায় ৮৫ জন, চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ৩০৪ নমুনায় ১৪৩ জন, আগ্রাবাদ মা ও শিশু হাসপাতালে ২৮৫ নমুনায় ৫১ জন, ইপিক হেলথ কেয়ারে ২৬১ নমুনায় ১৫৯ জন, শাহ আমানত বিমানবন্দরে ২৩২ নমুনায় ১৫ জন, এশিয়ান স্পেশালাইজড হাসপাতালে ১৮৬ নমুনায় ২৯ জন, মেডিকেল সেন্টার হাসপাতালে ১২৫ নমুনায় ২৬ জন, মেট্রোপলিটন হাসপাতালে ৭৩ নমুনায় ৩২ জন, চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয় ল্যাবে ৬২ নমুনায় ৩৪ জন এবং আরটিআরএলে ৫৯ নমুনায় ৩৭ জনের শরীরে করোনার উপস্থিতি পাওয়া গেছে।

এছাড়া ল্যাবএইডে একমাত্র নমুনা পরীক্ষার ফল নেগেটিভ এসেছে।

আরও পড়ুন : করোনা সংক্রমণ বাড়লে বন্ধ হবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান, ভার্চুয়াল ক্লাসের প্রস্তুতির নির্দেশ

তবে এদিন চট্টগ্রাম ভেটেরিনারি ও এনিমেল সাইন্সেস এবং কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ ল্যাবে কোনো নমুনা পরীক্ষা হয়নি।

উপজেলার মধ্যে রাঙ্গুনিয়া ২২ জন, রাউজান ১১ জন, ফটিকছড়ি ১০ জন, হাটহাজারী ৫১ জন, সীতাকুণ্ড ২০ জন, মিরসরাই ১৩ জন, সাতকানিয়া ১০ জন, বাঁশখালী ১ জন, আনোয়ারা ৯ জন, পটিয়া ৩ জন এবং বোয়ালখালীতে ১০ জন আক্রান্ত হয়েছেন।

তবে চন্দনাইশ, সন্দ্বীপ ও কর্ণফুলীতে কোনো রোগী পাওয়া যায়নি।

এ পর্যন্ত চট্টগ্রামে মোট আক্রান্ত হয়েছে ১ লাখ ৭ হাজার ৪৪৬ জন। যাদের ৭৮ হাজার ২৬৭ জন নগর এবং ২৯ হাজার ১৭৯ জন উপজেলার বাসিন্দা।

মোট মৃত্যু ১ হাজার ৩৪১। যাদের ৭২৭ জন নগরের ও ৬১৪ জন উপজেলার বাসিন্দা।

ডিসি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm