সীতাকুণ্ডে এবার ভেসে এলো শিশুপুত্রের লাশ

সীতাকুণ্ড উপজেলার সৈয়দপুর ইউনিয়নের পশ্চিম সৈয়দপুর সমুদ্র উপকূলে ভেসে এলো আরো এক রোহিঙ্গা শিশুপুত্রের লাশ। শিশুটির আনুমানিক বয়স ৮ বছর।

বৃহস্পতিবার (১৯ আগস্ট) সন্ধ্যা ৭টার দিকে মরদেহটি উদ্ধার করে কোস্টগার্ডের কাছে হস্তান্তর করেছে পুলিশ ।

এ নিয়ে সমুদ্র উপকূল হতে গত দুইদিনে ২ শিশুর মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

শিশুটি সম্প্রতি নোয়াখালীর ভাসানচরে ডুবে যাওয়া রোহিঙ্গাবাহী নৌকার যাত্রী ছিলো বলে ধারণা করছে পুলিশ।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, আনুমানিক সন্ধ্যা ৭টার দিকে পশ্চিম সৈয়দপুর সাগর উপকূলে একটি শিশুর লাশ ভেসে আসছে দেখে স্থানীয়রা পুলিশে খবর দেয়। পরে পুলিশ রাত পৌনে ৮টার দিকে শিশুটির লাশ উদ্ধার করে কুমিরা কোস্টগার্ডকে হস্তান্তর করে।

স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান তাজুল ইসলাম নিজামী বলেন, সমুদ্রের জোয়ারের পানিতে লাশটি ভেসে আসলে পুলিশ উদ্ধার করে।

আরও পড়ুন: ‘শিশুর লাশ’ ভেসে এলো সীতাকুণ্ডের সমুদ্র উপকূলে

সীতাকুণ্ড থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. আবুল কালাম আজাদ বলেন, আজ সন্ধ্যা ৭টার সময় একটি শিশুর লাশ উপকূলে ভেসে আসছে এমন সংবাদে সেখানে গিয়ে সেটি উদ্ধার করি। সম্প্রতি নোয়াখালীর ভাসানচর এলাকায় রোহিঙ্গাদের নৌকাডুবির ঘটনা ঘটে। লাশটি সে নৌকার কোনো যাত্রীর শিশুপুত্র বলে ধারণা আমাদের।

কুমিরা কোস্টগার্ডকে লাশটি হস্তান্তর করে তাদের মাধ্যমে ভাসানচর থানায় পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানান ওসি।

এর আগে বুধবার মুরাদপুর ইউনিয়নের গুলিয়াখালী সমুদ্র উপকূলে এক রোহিঙ্গা শিশুকন্যার লাশ ভেসে আসে।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার নোয়াখালীর ভাসানচর থেকে নৌকাযোগে ৪১ জন রোহিঙ্গা পালানোর সময় সমুদ্রের মাঝখানে নৌকাটি ডুবে যায়। এতে ১৪ জনকে জীবিত উদ্ধার করা হয়। নিখোঁজ ছিল ২৭ জন। এদের মধ্যে এখনো পর্যন্ত ১৩ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।

সালাউদ্দিন/ডিসি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm