সাঁঝবেলায় বধূকে ধর্ষণ করতে না পেরে রক্তাক্ত করল দেবর-ভাসুর

আনোয়ারার বৈরাগ ইউনিয়নে এক গৃহবধূকে (৩৫) ধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে খুরাঘাত করেছে দেবর ও ভাসুর।

বৃহস্পতিবার (২৭ অক্টোবর) সন্ধ্যা ৭টার দিকে ইউনিয়নের উত্তর গুয়াপঞ্চক এলাকার পরিমল চৌকিদারের বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে।

বৃহস্পতিবার রাতে ভুক্তভোগী নিজেই বাদী হয়ে দেবর সুজন চৌধুরী (৩০) ও ভাসুর তপন চৌধুরীর (৪৫) বিরুদ্ধে থানায় অভিযোগ করেছেন। অভিযুক্তরা উত্তর গুয়াপঞ্চক গ্রামের মন্টু কুমার চৌধুরীর ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, ২০১৯ সালে ভুক্তভোগীর স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে তাঁর দেবর ও ভাসুর নানাভাবে নির্যাতন করে আসছিল। দেবর সুজন চৌধুরী তাঁকে স্বামী মারা যাওয়ার পর থেকে কুপ্রস্তাব দিয়ে আসছিল। ঘটনার দিন সন্ধ্যায় বাড়িতে একা পেয়ে সুজন ভুক্তভোগী গৃহবধূর কক্ষে ঢুকে তাকে ধর্ষণের চেষ্টা করে। একপর্যায়ে ব্যর্থ হয়ে তাঁকে হত্যার উদ্দেশে সুজন ধারালো খুর দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত করে। এতে তাঁর দুহাত, বুকসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে মারাত্মক জখম হয়। এরপর ভুক্তভোগী গৃহবধূ প্রাণ বাঁচতে চিৎকার দিলে ভাসুর ও ভাসুরের ছেলে তাকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার চেষ্টা করে। এরপর প্রতিবেশীরা এগিয়ে আসে এবং আহত অবস্থায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেন।

আহত গৃহবধূর মা শোভা তালুকদার আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ভালো ঘর দেখে ১৫ বছর আগে মেয়েকে বিয়ে দিয়েছিলাম। ৩ বছর আগে তার স্বামী মারা যায়। তার দুইটা ছেলে আছে। স্বামীর মৃত্যুর পর থেকে তার দেবর ও ভাসুর নানাভাবে নির্যাতন করতে থাকে। কয়েকবার এসিড নিক্ষেপ করে কাপড় জ্বালিয়ে দিয়েছে, মারধর করত। এবার একা পেয়ে আমার মেয়েকে ধর্ষণচেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে খুরাঘাত করে। এর সুষ্ঠু বিচার চাই।

Yakub Group

যোগাযোগ করা হলে আনোয়ারা থানার অফিসার ইনচার্জ মির্জা মোহাম্মদ হাছান বলেন, এখনও অভিযোগ হাতে পাইনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

কাঞ্চন/এসআই

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm