সম্পদের লোভে ছোট বোনকে মেরে ফেলতে চাইছে বড় বোন

জীবিত থাকাকালে দানপত্রমূলে বাবার দেওয়া সম্পত্তি আত্মসাৎ চেষ্টা, প্রাণে মেরে ফেলার ভয়ভীতি, হুমকি ও নির্যাতনের অভিযোগ এনে আপন বড় বোন এবং তাঁর স্বামীর বিরুদ্ধে সংবাদ সম্মেলন করেছেন কামরুন নাহার ভূঁইয়া (ইভা) নামে এক ভুক্তভোগী।

শুক্রবার (২৬ আগস্ট) বিকেলে চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাবের এস রহমান হলে তিনি সংবাদ সম্মেলন করেন। ঘটনাটি নগরীর হালিশহর থানাধীন আগ্রাবাদ এক্সেস রোডের বেপারীপাড়া এলাকার।

আরও পড়ুন : চকলেটের লোভ দেখিয়ে ধর্ষণচেষ্টা, পুলিশের জালে মধ্যবয়সী পাষণ্ড

লিখিত বক্তব্যে কামরুন নাহার ভূঁইয়া জানান, তার বাবা মরহুম ইয়াকুব আলী ভূঁইয়া স্বনামধন্য ব্যবসায়ী ছিলেন। তারা দুই বোন। বাবা জীবিত থাকাবস্থায় দানপত্র দলিলে আগ্রাবাদ মৌজার ০.০৭৮৮ একর সম্পত্তি কামরুন নাহারকে দখল বুঝিয়ে দেন। পরবর্তীতে তার মায়ের মৃত্যুর পরে ওয়ারিশ সূত্রে মালিক ০.০৭৮৮ শতাংশ সম্পত্তি (৩৫৮৪/১৯৯২-১৯৯৩ ইংরেজি) নামজারি মূলে নামজারি খতিয়ান করেন।

তিনি অভিযোগ তোলেন, তার বাবা ও মায়ের মৃত্যুর পর বড় বোন শামসুন নাহার ও তার সাবেক স্বামী হাফিজুর রহমান সোহেল এবং বর্তমান স্বামী শামসুল আরেফিন লিংকন মিলে সেই সম্পত্তি আত্মসাৎ করার অপচেষ্টায করছেন। এমনকি বিভিন্নভাবে তাকে নির্যাতন ও জমি দখলের চেষ্টা করে আসছেন। এমনকি ভূমিদস্যু লেলিয়ে দেওয়াসহ নানাভাবে প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছেন। এ অবস্থায় চরম নিরাপত্তাহীনতার কথা বলে আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করেন তিনি।

Yakub Group

কামরুন অভিযোগ করে বলেন, আমার পিতার রেখে যাওয়া টাকা ও মায়ের স্বর্ণালংকারও বড় বোন ও তার সাবেক স্বামী আত্মসাৎ করেছেন। যার অডিও রেকর্ড আমার কাছে সংরক্ষিত রয়েছে। ২০২০ সালে সেই সম্পত্তি জনৈক মাহবুব আলমের কাছে বিক্রি করেন। আমি যাতে পজিশনে যেতে না পারি অপকৌশল হিসেবে আমাকে নিখোঁজ বলে প্রচার করছেন। যার কোনো ভিত্তি নেই। কারণ আমি কখনো মাহবুব আলম কর্তৃক অপহৃত বা নিরুদ্দেশ নই। এসব আমার বড় বোন শামসুন নাহারের সাজানো নাটক। তাদের ভয়ে আমি ঢাকায় বসবাস করছি। তাদের কারণে আমার চায়নায় ডাক্তারি কোর্স পড়া ছেড়ে দিতে হয়েছে। তাদের বিরুদ্ধে আমি জিডি করেছি।

কামরুন অভিযোগে বলেন, কিছুদিন আগে তারা একটি বাসায় সংবাদ সম্মেলন করেছেন, যা আমার দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এটি ছিল মূলত আমার সম্পত্তি আত্মসাতের অপকৌশল। যা সম্পূর্ণ সাজানো ও বানোয়াট।

এসবে বিভ্রান্ত না হতে আইন শৃঙ্খলাবাহিনীর প্রতি অনুরোধ জানিয়ে ভূক্তভোগী নারী বলেন, অভিযুক্তদের অব্যাহত হুমকিতে আমি নিরাপত্তাহীনতায় আছি। এ ঘটনায় জড়িতদের বিচারের দাবি জানাচ্ছি।

সংবাদ সম্মেলনে আরও উপস্থিত ছিলেন শায়লা পারভীন লিজা, আইনজীবি জসিম উদ্দিন আকন ও আইনজীবী দীপক দত্ত।

এসআর/আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm