শিশু খুন—বিরোধের ছুরি ঢুকল অবুঝ শিশুর গলায় পেটে

হাটহাজারীতে ঘরে ঢুকে নৃশংসভাবে ছুরিকাঘাত করে মো. ওয়ালিদ নামে তিন বছরের এক শিশুকে খুন করা হয়েছে। জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে শিশু ওয়ালিদকে খুন করা হয়েছে বলে অভিযোগ পরিবারের। বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে হাটহাজারী থানা পুলিশ

বুধবার (১৫ জুন) দুপুরে হাটহাজারী উপজেলার শিকারপুর ইউনিয়নের পূর্ব শিকারপুর গ্রামে এই নৃশংস হত্যার ঘটনা ঘটে। নিহত শিশু ওয়ালিদ ওই এলাকার দুবাই প্রবাসী মু. জাবেদের একমাত্র সন্তান।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, দুপুরে ওয়ালিদকে খাবার খাওয়ার পর ঘুম পাড়িয়ে পুকুরে গোসল করতে যান তার মা ইসরাত জাহানসহ বাড়ির সব নারীরা। পুকুর থেকে গোসল শেষে ঘরে এসে দেখতে পান ওয়ালিদ রক্তের ওপর ছটফট করছে। একটু একটু শ্বাস নিচ্ছিল। ওয়ালিদের রক্তমাখা শরীর দেখে মা ইসরাত জাহানের চিৎকারে আকাশ কাঁপছিল।

চিৎকার শুনে ছুটে আসেন প্রতিবেশীরা। তারা দ্রুত ওয়ালিদকে উদ্ধার করে প্রথম হাটহাজারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখান থেকে এভারকেয়ার হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

Yakub Group

আরও পড়ুন: একটু বৃষ্টিতেই জলে ভাসে বাকলিয়া, জনদুর্ভোগের সুযোগে ভাড়া হয় দ্বিগুণ

নিহত ওয়ালিদের চাচা মো. খোরশেদ বলেন, ওয়ালিদ আমার ভাইয়ের একমাত্র সন্তান। আমার ভাই দুবাই প্রবাসী। ওয়ালিদকে দুপুরে খাবার খাওয়ার পর ঘুম পাড়িয়ে তার মা ও দাদি পুকুরে গোসল করতে যান। ওই সময়ে কে বা কারা ঘরে ঢুকে ওয়ালিদের গলায় ও পেটে ছুরিকাঘাত করে নৃশংসভাবে হত্যা করে পালিয়ে যায়। পরে তাকে দ্রুত উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে গেলে সেখান কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

যোগাযোগ করা হলে হাটহাজারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রফিকুল ইসলাম আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, শিশু ওয়ালিদ হত্যার ঘটনায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। মামলার সূত্র ধরে তদন্ত করা হচ্ছে। এখনও কাউকে শনাক্ত কিংবা গ্রেপ্তার করা হয়নি।

জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে হত্যা করা হয়েছে, পরিবারের এ অভিযোগের বিষয়ে ওসি বলেন, কে বা কারা এই হত্যাকাণ্ড সংঘটিত করেছে তা নিশ্চিত না করে বলা যাচ্ছে না। এই হত্যাকাণ্ডে কারা জড়িত ছিল তা বের করার পর হত্যার আসল কারণ জানা যাবে। তার আগে কিছু বলা যাচ্ছে না।

জেএন/এসআই

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm