মাতামুহুরী নদীতে ৭ মাস বয়সী শিশুর লাশ ঘিরে রহস্য

মাতামুহুরী নদী থেকে মো. আনাছ নামের ৭ মাস বয়সী এক শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। কীভাবে শিশুটির মৃত্যু হলো তা নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে।

বুধবার (৯ নভেম্বর) ভোরে উপজেলার কাকারা ইউনিয়নের মাঝের ফাঁড়ি স্টেশনের মাতামুহুরী নদীর পয়েন্ট থেকে স্থানীয়দের সহায়তায় লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

শিশু আনাছ উপজেলার সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যম সুরাজপুর এলাকার হোসাইন আলীর ছেলে।

আরও পড়ুন: সীতাকুণ্ডের কদমরসুলে জোয়ারে ভেসে এলো দুধের শিশুর লাশ

সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান আজিমুল হক আজিম বলেন, মাতামুহুরী নদীর তীরবর্তী সুরাজপুর-মানিকপুর ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের বাসিন্দা হোসাইন আলীর পরিবার। রাতে শিশুটি খুব জোরে কান্নাকাটি করেছিল। এসময় মা শিশুকে শান্ত করতে বুকের দুধও খাওয়ান। একপর্যায়ে শিশুটি ঘুমিয়ে পড়েন বলে জানান মা।

Yakub Group

চেয়ারম্যান আরও বলেন, বুধবার ভোরে কাকারা মাঝের ফাঁড়ি স্টেশন জামে মসজিদের কয়েকজন মুসল্লি ওই শিশুকে মাতামুহুরী নদীতে ভাসতে দেখতে পান। পরে শিশুটিকে স্থানীয় লোকজন উদ্ধার করেন।

এদিকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার (চকরিয়া সার্কেল) মো. তফিকুল আলম ও চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবর্তী।

যোগাযোগ করা হলে চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) চন্দন কুমার চক্রবতী বলেন, ঘটনাস্থল থেকে শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। লাশ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। ঘটনাটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে।

এমকেডি/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm