চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে পরীক্ষা দিয়ে লাশ হয়ে বাড়ি ফিরল ফাহিম

ফাহিমের বাবা-মায়ের স্বপ্ন ছিল ছেলে বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়বে। কিন্তু ভাগ্যের কী নির্মম পরিহাস! বাবা-মায়ের সেই স্বপ্ন স্বপ্নই থেকে গেল। চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা শেষে বাড়ি ফেরার পথে ঘাতক পিকআপ কেড়ে নিয়েছে ফাহিমের জীবন।

সোমবার (২২ আগস্ট) রাত সাড়ে ১২টার দিকে চকরিয়া-বদরখালী কে বি জালাল উদ্দীন সড়কের পোকখালী পয়েন্টে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত শিক্ষার্থী মো. ফাহিম (১৯) চকরিয়ার উপকূলীয় ইউনিয়ন বদরখালীর ৩ নম্বর ওয়ার্ডের কুতুবদিয়াপাড়ার আব্দু শুক্কুরের ছেলে।

আরও পড়ুন: বাঁশখালীতে শিশুর ঝুলন্ত লাশ নিয়ে রহস্য, পালিয়ে গেছে সৎ বাবা

নিহত শিক্ষার্থীর পরিবার সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (২২ আগস্ট) চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ে ডি ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষা ছিল ফাহিমের। বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে রাতে বাড়ির উদ্দেশ্যে রওনা দিলে চকরিয়া-বদরখালী সড়কের পশ্চিম বড় ভেওলা ইউনিয়নের পোকখালী এলাকায় পৌঁছালে দ্রুতগতির ডাম্পার (মিনি পিকআপ) গাড়ির সঙ্গে যাত্রীবাহি অটোরিকশার মুখোমুখি সংঘর্ষে হয়। এসময় অটোরিকশায় থাকা ফাহিমসহ ৫ যাত্রী গুরুতর আহত হন।

Yakub Group

পরে আহতদের স্থানীয়রা উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। গুরুতর আহত শিক্ষার্থী ফাহিমের অবস্থা আশঙ্কাজনক হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে পাঠান। আজ (মঙ্গলবার) রাত ৪টার দিকে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে মাতামুহুরী পুলিশ তদন্তকেন্দ্রের (পুলিশ পরিদর্শক) মো. মিজানুর রহমান বলেন, সোমবার রাতে যাত্রীবাহী অটোরিকশনার সঙ্গে পিকআপের মুখোমুখি সংঘর্ষ হয়। এতে অটোরিকশার ৫ যাত্রী আহত হন। এদের মধ্যে আহত একজন চমেক হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান।

তিনি আরও বলেন, ঘটনাস্থল থেকে ঘাতক পিকআপটি জব্দ করা হয়। তবে গাড়ির চালক ও হেলপার পালিয়ে যায়। নিহতের পরিবারের পক্ষ থেকে অভিযোগ দেওয়া হলে পরবর্তী আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এমকেডি/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm