‘লাশ উদ্ধারের’ ৫ মাস পর জানা গেল ধর্ষণের পরই হত্যা করা হয় শিশুকে

সাড়ে তিন বছর বয়সী শিশুটির লাশ উদ্ধার করা হয়েছিল পাঁচ মাসের বেশি সময় আগে। এরপর লাশ যায় ময়নাতদন্তে।

সেই ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসতেই লেগে যায় ৫ মাস আট দিন। রিপোর্টে মেলে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যার আলামত।

ঘটনা কক্সবাজারের চকরিয়ার। সাড়ে তিন বছর বয়সী এক শিশুকে ধর্ষণের পর শ্বাসরোধ করে হত্যার অভিযোগে মো. দুলাল মিয়া (২২) নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

সোমবার (২ আগস্ট) বিকেলে নিজ বাড়ি থেকে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার মো. দুলাল মিয়া চকরিয়া উপজেলার কোনাখালী ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের দক্ষিণ জঙ্গলকাটা গ্রামের আবু তাহেরের ছেলে।

জানা যায়, গত ১৭ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ জঙ্গলকাটা গ্রামের সাড়ে তিন বছর বয়সী এক শিশু বাড়ির পাশে অন্য বন্ধুদের সঙ্গে খেলতে গিয়ে নিখোঁজ হয়। পরে ২৪ ফেব্রুয়ারি বাড়ির অদূরে একটি পুকুর থেকে ওই শিশুর লাশ উদ্ধার করা হয়। পুলিশ শিশুটির মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরণ করে।

এ ঘটনায় থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা হয়। দীর্ঘ ৫ মাস ৮ দিন পর ময়নাতদন্তের রিপোর্ট আসে থানায়। রিপোর্টে ওই শিশুকে ধর্ষণ ও শ্বাসরোধ করে হত্যার আলামত পাওয়া যায়। পরে অপমৃত্যুর মামলাটি হত্যা মামলা হিসেবে রেকর্ড হয়। এ মামলায় আসামি করা হয় মো. দুলালকে। পুলিশ অভিযান চালিয়ে দুলালকে গ্রেপ্তার করে।

চকরিয়া থানার পরিদর্শক (তদন্ত) মো. জুয়েল ইসলাম বলেন, ঘটনার পর থেকে দুলাল পলাতক থাকায় তার বিষয়ে সন্দেহ ঘনীভূত হয়। এ ঘটনায় ওই শিশুর বাবা বাদী হয়ে থানায় একটি মামলা দায়ের করেন। সোমবার অভিযুক্ত দুলালকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। মঙ্গলবার তাকে আদালতে পাঠানো হবে।

এমকেডি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm