নির্যাতিত মুসলিমদের জন্য দোয়া—চট্টগ্রামে যখন যেভাবে হলো ঈদ জামাত

দেশ ও জাতির মঙ্গল কামনা এবং সারা বিশ্বের নিপীড়িত-নির্যাতিত মুসলিমদের জন্য দোয়া কামনার মধ্যদিয়ে চট্টগ্রামের জমিয়াতুল ফালাহ মসজিদে ঈদুল ফিতরের প্রথম ও প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে।

মঙ্গলবার (৩ মে) সকাল ৮টায় ঈদুল ফিতরের প্রথম জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

ঈদ জামাতে ইমামতি করেন জমিয়াতুল ফালাহ জাতীয় মসজিদের খতিব হযরতুল আল্লামা সৈয়দ আবু তালেব মোহাম্মদ আলাউদ্দীন আল কাদেরী।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামে নিরাপত্তার চাদরে মোড়ানো থাকবে ঈদ জামাত, সতর্ক সিএমপি

এরপর একই স্থানে সকাল ৯টায় দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করেন জমিয়াতুল ফালাহ’র পেশ ইমাম হাফেজ মৌলানা আহমদুল হক।

এছাড়া একইদিন সকাল ৮টায় নগরের লালদীঘির পাড় চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন শাহী জামে মসজিদ, সুগন্ধা আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, হযরত শেখ ফরিদ (র.) চশমা ঈদগাহ মসজিদ, চকবাজার সিটি করপোরেশন জামে মসজিদ, জহুর হকার্স মার্কেট জামে মসজিদ, দক্ষিণ খুলশী (ভিআইপি) আবাসিক এলাকা জামে মসজিদ, আরেফীন নগর কেন্দ্রীয় কবরস্থান জামে মসজিদ, সাগরিকা গরুর বাজার জামে মসজিদ ও মা আয়েশা সিদ্দিকী চসিক জামে মসজিদে ঈদ জামাত অনুষ্ঠিত হয়।

পাশাপশি নগরের ৪১টি ওয়ার্ডে সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ড কাউন্সিলরদের তত্ত্বাবধানে একটি করে প্রধান ঈদ জামাত নিজ নিজ এলাকার মসজিদ ও ঈদগাঁহে অনুষ্ঠিত হয়।

এদিকে চট্টগ্রাম জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে কেন্দ্রীয় ঈদ জামাত কমিটির প্রধান ঈদ জামাত সকাল ৯টায় এমএ আজিজ স্টেডিয়ামের সামনের মাঠে অনুষ্ঠিত হয়। এতে ঈমামতি করেন বায়তুশ শরফ আদর্শ কামিল মাদ্রাসার প্রিন্সিপ্যাল হযরত মাওলানা ড. সাইয়েদ মুহাম্মদ আবু নোমান।

এছাড়া কমিটির আওতাভুক্ত নগরের ৯৪টি আঞ্চলিক ঈদগাঁর ঈদের নামাজ অনুষ্ঠিত হয়।

আরও পড়ুন: চট্টগ্রামের আকাশে—বাতাসে খুশির জোয়ার

এর আগে সকাল থেকে ঈদের জামাতে অংশ নেন মুসল্লিরা। নামাজ শেষে দোয়া ও মোনাজাতে অংশ নেন। দেশ-জাতির মঙ্গল কামনা এবং সারা বিশ্বের নিপীড়িত-নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য দোয়া কামনা করে আল্লাহর দরবারে বিশেষ মোনাজাত করেন তারা।

নগরের জমিয়াতুল ফালাহ জাতীয় মসজিদ ও শাহী জামে মসজিদসহ বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ মসজিদে ঈদ জামাতে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ চার স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করে। এছাড়া সন্দেহভাজন ব্যক্তিদের ঈদ জামাতে অংশ নেওয়ার আগে তল্লাশি করা হয়।

আরবি/আলোকিত চট্টগ্রাম

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm