যুবক খুন—আড়ালে পুকুরঘাটে দুই নারীর ঝগড়া

সীতাকুণ্ডে পুকুরঘাটে দুই নারীর ঝগড়ার জেরে রক্তাক্ত যুবক মো. বাবলু হোসেনকে (৩২) বাঁচানো যায়নি । তিনি পৌরসদরের ৪নং ওয়ার্ডের মধ্যম মহাদেবপুর শেখনগর গ্রামের মো. কামাল উদ্দিনের ছেলে।

পুলিশ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেছে। বৃহস্পতিবার (২৮ এপ্রিল) রাত ৩টার দিকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

থানা সূত্রে জানা যায়, গত ২৬ এপ্রিল সীতাকুণ্ড পৌরসভার মধ্যম মহাদেবপুর শেখনগর গ্রামের সাইফুল ও মিয়ান প্রকাশ শাহীনের মধ্যে পারিবারিক বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। এ ঘটনার জেরে ২৭ এপ্রিল শাহীনের লোকজন সাইফুলকে টানাহেঁচড়া করে নিয়ে নিয়ে যাওয়ার সময় ঘটনাস্থলে আসেন বাবলু। পরে তিনি হামলাকারীদের প্রতিরোধ করার চেষ্টা করলে হামলাকারী দলের সদস্য আরমান (৩০) বাবলুর পেটে ছুরি চালায়। পরে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হলে সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তার মৃত্যু হয়।

আরও পড়ুন: প্রাইভেট কারে মাদক নিয়ে যাচ্ছিল ২ যুবক

সীতাকুণ্ড থানার ওসি মো. আবুল কালাম আজাদ আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, একেবারে তুচ্ছ ঘটনা বলা যায়। পুকুরঘাটে দুই নারীর মধ্যে একটি বিষয় নিয়ে ঝগড়া হয়। এ ঘটনার কথা দুই নারীর একজন তার নিজের ছেলেকে জানান, আর অপরজন তার স্বামীকে জানান। পরে এ নিয়ে তারা মারামারিতে জড়িয়ে পড়ে। এই মারামারিতে কোনো এক পক্ষের রোষাণলে পড়ে ছুরিকাঘাতে মারাত্বক আহত হন বাবলু।

ওসি বলেন, এ ঘটনায় ২৭ এপ্রিল বাবলুর বাবা কামাল উদ্দিন বাদী হয়ে ৪ জন এবং অজ্ঞাত আরো ৪-৫ জনের বিরুদ্ধে থানায় মামলা দায়ের করেন। এ সময়ে বাবলু চিকিৎসাধীন ছিল। তিনি গতকাল রাত ৩টার দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মারা যান। এ বিষয়ে হত্যা মামলা দায়ের হবে। আসামিদের দ্রুত গ্রেপ্তার করা হবে।

সালাউদ্দিন/এসআই

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm