‘মেয়েকেই ধর্ষণ’—পুলিশের জালে সেই নরপিশাচ বাবা

মিরসরাইয়ে নিজ মেয়েকে ধর্ষণ করেছে পাষণ্ড পিতা। এমনই অভিযোগ খোদ ধর্ষণের শিকার হওয়া মেয়ের।

রোববার (১৩ জুন) রাতে উপজেলার জোরারগঞ্জ ইউনিয়নের দক্ষিণ সোনাপাহাড় (মস্তাননগর রেল স্টেশন) এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ধর্ষণের খবর ছড়িয়ে পড়লে উপজেলাজুড়ে ক্ষোভের ঝড় উঠে।

এ ঘটনায় ভিকটিম (মেয়ে) বাদি হয়ে জোরারগঞ্জ থানায় ধর্ষণ মামলা করেছেন। অভিযুক্ত আসামি নুর উদ্দিন মিঠুকে গ্রেফতার করেছে থানা পুলিশ।

জানা গেছে, ৫ সদস্যের সংসারে দুই ভাই ও এক বোনের মধ্যে মেয়েটি বড়। ঘটনার দিন রাতে মেয়ের মা বাড়িতে ছিল না। এ সুযোগে চেতনানাশক ওষুধ খাইয়ে মেয়েকে ধর্ষণ করে বাবা।

পরদিন সোমবার (১৪ জুন) সন্ধ্যায় স্থানীয় জনপ্রতিনিধিদের মাধ্যমে বিষয়টি সমাধানের চেষ্টা করা হয়। পরে ঘটনা জানাজানি হলে মিরসরাই সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার ও জোরারগঞ্জ থানার ওসি ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে ভিকটিমকে উদ্ধার করে থানা হেফাজতে নিয়ে আসে।

এ বিষয়ে জোরারগঞ্জ থানার ওসি (তদন্ত) হেলাল উদ্দিন ফারুকী জানান, ধর্ষণের ঘটনায় মামলার পর অভিযুক্ত আসামি নুর উদ্দিন মিঠুকে সোমবার রাতে আটক করা হয়েছে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে তিনি ধর্ষণের কথা স্বীকার করেছেন। মঙ্গলবার (আজ) মেয়েটিকে ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আজিজ/আরবি

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm