মিরসরাইয়ে ভবনের ছোট্ট কক্ষে বানায় বিদেশি ব্র্যান্ডের শেভিং জেল—হেয়ার ওয়াশ

মিরসরাইয়ে দেশি-বিদেশি নকল প্রসাধনী তৈরির কারখানার সন্ধান পাওয়া গেছে। এসময় আটক কারখানার মালিক মো. জামাল আক্তার সিদ্দিককে (৪০) ১৮ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমাণ আদালত। সেইসঙ্গে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (২০ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার উত্তর সোনাপাহাড় এলাকার মঈন উদ্দিন ফিলিং স্টেশনের পূর্ব পাশে শাহ মঞ্জিল ভবনের একটি কক্ষে এ অভিযান চালানো হয়। অভিযানে নেতৃত্ব দেন মিরসরাই উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিজানুর রহমান ও মিরসরাই সার্কেলের এএসপি লাবিব আব্দুল্লাহ।

সাজাপ্রাপ্ত মো. জামাল আক্তার সিদ্দিকী চট্টগ্রামের খুলশী এলাকার বাসিন্দা বলে জানা গেছে।

আরও পড়ুন: মিরসরাইয়ে জয়ের মালা রত্না—প্রদীপের গলায়

জানা গেছে, অভিযানে হেয়ার ওয়াশ মৌলি কসমেটিকস ৫০ পিস, জেসকো শেভিং জেল মোডলি কসমেটিকস ৬০ পিস, ফেস মেসেজ ক্রিম ৫০ পিস, পিউর কোকোনাট তেল ২০ পিস, শাইনিং হেয়ার ওয়াশ কসমেটিকস বিপিকিং ওয়াকস ৫০ পিস, হ্যান্ড স্যানিটাইজার ৫০ পিস ও ৩ ড্রাম কেমিক্যাল জব্দ করা হয়।

Yakub Group

এ বিষয়ে উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিজানুর রহমান আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, মানবদেহের জন্য ক্ষতিকর নকল প্রসাধনী তৈরির খবরে অভিযান চালিয়ে ৮টি কসমেটিকস তৈরির কাঁচামাল জব্দ করা হয়। এসময় কারখানার মালিক জামাল আক্তার সিদ্দিকীকে ১৮ মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। সেইসঙ্গে ১ লাখ টাকা জরিমানা এবং অনাদায়ে আরও তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

মিরসরাইয়ের এএসপি লাবিব আব্দুল্লাহ বলেন, বৃহস্পতিবার গোপন সংবাদে জানতে পেরে আমি সাদা পোশাকে ঘটনাস্থলে পৌঁছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে বিষয়টি অবহিত করি। এরপর ইউএনও উপজেলা সহকারী কমিশনার (ভূমি) মিজানুর রহমানকে পাঠালে অভিযান চালানো হয়।

এএ/আরবি

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

মন্তব্য নেওয়া বন্ধ।

ksrm