‘মিনুকে জেল খাটানো’ সেই কুলসুমী পুলিশের জালে

অবশেষে গ্রেপ্তার হলেন ‘মিনুকে জেল খাটানো’ সেই কুলসুমী। কুলসুম আক্তার কুলসুমীর বদলে চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারে দীর্ঘ ২ বছর ৯ মাস ১০ দিন কারাভোগ করেন মিনু।

এর আগে গত ১৬ জুন কারাগার থেকে মুক্তি পান মিনু আক্তার। কিন্তু মুক্তির পর মিনুর চিরতরে মুক্তি মিলেছে।

বৃহস্পতিবার (২৯ জুলাই) ভোরে নগরের পতেঙ্গা এলাকা থেকে মূল আসামি সেই কুলসুমীকে গ্রেফতার করে কোতোয়ালী থানা পুলিশ।

যাবজ্জীবন দণ্ডপ্রাপ্ত আসামি কুলসুমী লোহাগাড়া উপজেলার গৌরস্থান মাঝের পাড়া আহাম্মদ মিয়ার বাড়ির আনু মিয়ার মেয়ে। তার বর্তমান ঠিকানা কোতোয়ালী থানাধীন রহমতগঞ্জ সাঈদ ডাক্তারের ভাড়া বাড়ি।

কোতোয়ালী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নেজাম উদ্দিন বলেন, ‘কুলসুমাকে আজ (বৃহস্পতিবার) ভোরে নগরের পতেঙ্গা এলাকা থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তাকে আদালতে আদালতে তোলা হবে।

জানা যায়, একটি হত্যা মামলায় আদালত যাবজ্জীবনসহ ৫০ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরও ১ বছরের কারাদণ্ড দেন কুলসুম আক্তার কুলসুমীকে। তার পরিবর্তে আদালতে আত্মসমর্পণ করে জেল খাটেন মিনু। বিষয়টি চট্টগ্রাম কেন্দ্রীয় কারাগারের সিনিয়র জেল সুপার মো. শফিকুল ইসলাম খান আদালতের নজরে আনেন। এরপর গত ২২ মার্চ অতিরিক্ত চতুর্থ মহানগর দায়রা জজ শরীফুল আলম ভূঁঞার আদালতে মিনুকে হাজির করা হলে তার জামিন হয়। জামিনের পর গত ২৮ জুন ভোররাতে সড়ক দুর্ঘটনায় মিনু আক্তার মারা যান।

আলোকিত চট্টগ্রাম

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm