মানবিকতা—রোগী নিয়ে হাসপাতাল পৌঁছে দিচ্ছে জাফরের অটোরিকশা

সারাদেশে চলছে এক সপ্তাহের ‘কঠোর লকডাউন।’ বন্ধ রয়েছে সবধরনের গণপরিবহণ। এ সময় রোগীদের হাসপাতাল আনা-নেওয়া খুবই কষ্টকর।

করোনাকালীন এমন কঠিন সময়ে রোগীদের যাতায়াত ‍সুবিধার কথা চিন্তা করে চট্টগ্রাম সিটি করপোরেশন এলাকায় বিনামূল্যে হাসপাতাল পৌঁছে দিচ্ছে জাফর অ্যান্ড কোম্পানির ফ্রি অটোরিকশা।

মোবাইল ফোন (০১৩১২-৩৩৬০২৭, ০১৬০১-১০৭৭৬৫) এ দুটি নম্বরে ফোন করলেই নগরের যে কোনো জায়গা থেকে রোগীদের পছন্দের হাসপাতালে পৌঁছে দেবে জাফরের অটোরিকশা

গত ১ জুলাই ‍বৃহস্পতিবার থেকে নগরের বাদুরতলা থেকে শুরু হওয়া এই সেবা প্রতিদিন সকাল ৬টা থেকে রাত ১০ টা পর্যন্ত চালু রয়েছে। এ সময়ের মধ্যে রোগীরা ফ্রি যাতায়াত করতে পারবেন।

Yakub Group

এ বিষয়ে নগরের বাদুতলার জাফর অ্যান্ড কোম্পানির মালিক হাজী মো. জাফর আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, ‘৩০-৩৫ বছর ধরে আমি অটোরিকশার ব্যবসা করছি। বর্তমান সময়ে আপনার টাকা আছে কিন্তু রাস্তায় গাড়ি পাচ্ছেন না। বিশেষ করে লকডাউনের এই সময়ে মুর্মূর্ষ রোগীদের কথা চিন্তা করে আমি ফ্রি এই সেবা চালু করেছি।

তিনি আরও বলেন, ‘সিটি করপোরেশন এলাকায় প্রতিদিন আমার নিজস্ব খরচে ২টি অটোরিকশা সকাল ৬টা থেকে রাত ১০ পর্যন্ত নগরের যে কোন জায়গা থেকে রোগীদের হাসপাতাল পৌঁছে দেবে। ব্যানারে দেওয়া মোবাইল নম্বরে ফোন করলে চালক গাড়ি নিয়ে পৌঁছে যাবে নির্দিষ্ট জায়গায়।’

রোগীদের সেবায় নিয়োজিত অটোরিকশা চালক ‘মোহাম্মদ নুর আলম বলেন, ‘শুরু থেকে রোগীদের ভালোই সাড়া পাচ্ছি। তিনদিনে প্রায় ১৫ জন রোগীকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ , জেনারেল হাসপাতালসহ বিভিন্ন হাসপাতালে পৌঁছে দিয়েছি।’

অপর চালক লিটনও জানালেন প্রায় একই কথা।

করোনার উচ্চ সংক্রমণের মধ্যেও রোগীদের হাসপাতালে পৌঁছে দিতে পেরে তারা অনেক খুশি ও স্বস্তি পাচ্ছেন বলেও জানান।

কঠোর লকডাউনে মো. জাফরের মানবিক উদ্যোগের প্রশংসা করেছেন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসকেরা।

এ বিষয়ে চট্টগ্রাম মা ও শিশু হাসপাতালের সহযোগী অধ্যাপক ডা. রজত শংকর রায় বিশ্বাস বলেন, ‘কঠোর লকডাউনে পরিবহন সংকটে রোগীদের হাসপাতালে আনা-নেওয়া খুবই কষ্টসাধ্য।

এমন কঠিন সময়ে মো. জাফর যেভাবে মানবতার সেবায় এগিয়ে এসেছেন তার এই মানবিক উদ্যোগ অনুকরণীয়। করোনার এই দুঃসময়ে জাফরের মত অন্যদেরও রোগীদের সেবায় এগিয়ে আসা উচিত। ’

আলোকিত চট্টগ্রাম

যখনই ঘটনা, তখনই আপডেট পেতে, গ্রাহক হয়ে যান এখনই!

আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm