মাদক বাণিজ্যে বাধা—পিটিয়ে রক্তাক্ত ৫, হাসপাতালে গেল ৩ যুবক

মিরসরাইয়ে মাদক বাণিজ্যে বাধা দেওয়ায় হামলার ঘটনা ঘটেছে। এতে আহত হয়েছেন ৫ জন। এর মধ্যে ৩ জনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

সোমবার (২০ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ১০টায় ইছাখালী ইউনিয়নের ২ নম্বর ওয়ার্ড জয়নগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এ সময় মাদক ব্যবসায়ীদের হামলায় মো. আশরাফুল ইসলাম (২৬), আরাফাতুল ইসলাম (২৩), শাহাদাত হোসেন (২৪), আলতাফ হোসেন (২৩), শাখাওয়াত হোসেন মুন্না (২৩) আহত হয়।

আরও পড়ুন: ৫ হাজার ইয়াবা নিয়ে ৩ মাদক কারবারি ধরা খেল

আহতদের মধ্যে মো. আশরাফুল ইসলাম, আরাফাতুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেনকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় চমেক হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত আশরাফুল ও আরাফাতুল ইসলামের বড় ভাই আরিফুল ইসলাম ফারভেজ জানান, আবুরহাট এলাকায় দীর্ঘদিন ধরে ইউসুফ, ইউনুস, আবু বক্করের নেতৃত্বে ইয়াবাসহ বিভিন্ন মাদকদ্রব্য বিক্রি চলছে। আমার ভাইয়েরা তাদের এলাকায় মাদক বিক্রি করতে নিষেধ করে।

এর আগে সোমবার সকালে স্থানীয় ইউসুফ চেয়ারম্যানের ছেলে জিয়া উদ্দিন গাজীর সাথে মাদক ব্যবসায়ীদের কথা কাটাকাটি হয়।

আরও পড়ুন: ‘কাপড়ের ব্যবসা’ আড়ালে মাদকবাণিজ্য, ১৮ লাখ টাকার ইয়াবা নিয়ে ধরা পড়ল যুবক

একইদিন রাত সাড়ে ১০টায় ইউসুফ, ইউনুস, আবু বক্কর, ফাহাদ, শান্ত, হৃদয়, রিয়াজ ও  শাকিবরা জিয়া উদ্দিন গাজীর উপর হামলা করে। এ সময় আমার ভাইয়েরা গিয়ে জিয়াকে ‍উদ্ধার করে বাড়ি পাঠিয়ে দেয়। পরে মাদক ব্যবসায়ীরা আমার ভাই আশরাফুলকে এলোপাতাড়ি কোপানো শুরু করে। এ সময় মাথা, গাড়ে কোপ লাগে এবং বাম হাতের একটি আঙ্গুল পড়ে যায়। তাকে বাঁচাতে গেলে আরফাতুল ইসলাম, শাহাদাত হোসেন, আলতাফ হোসেন, শাখাওয়াত হোসেন মুন্নাকেও তারা কুপিয়ে আহত করে।

জোরারগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) নুর হোসেন মামুন আলোকিত চট্টগ্রামকে বলেন, আবুরহাটে হামলার ঘটনায় থানায় এখনো কেউ অভিযোগ করেনি। হামলার ঘটনায় মামলার প্রস্তুতি চলছে। জড়িতদের গ্রেপ্তারের চেষ্টা করা হচ্ছে।

আজিজ/আরবি
আপনার মন্তব্য লিখুন

আপনার ইমেইল ঠিকানা প্রকাশিত হবে না।

ksrm